আদায়কৃত বাড়তি টাকা এসএসসি পরিক্ষার্থীদের ফেরত দিন: শিক্ষামন্ত্রী

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

এসএসসি পরীক্ষার ফর্ম পূরণ ফি, ভর্তি ফি, মাসিক বেতনসহ শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায়কারী বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহকে বেঁধে দেয়া ৭ দিনের সময়সীমার মধ্যে উক্ত অতিরিক্ত অর্থ ফেরৎ দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

শিক্ষামন্ত্রী গতকাল সোমবার তাঁর মন্ত্রণালয়ে দেশের বিশিষ্ট ব্যক্তিদের এক প্রতিনিধিদলের সাথে বৈঠককালে এ নির্দেশ দেন বলে  শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার মুহ. সাইফুল্লাহ্ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানান হয়।

বিশিষ্ট মানবাধিকারকর্মী এডভোকেট সুলতানা কামালের নেতৃত্বে শিক্ষাবিদ ও বুদ্ধিজীবীগণ বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অতিরিক্ত ফি আদায়ে তাঁদের উদ্বেগ প্রকাশ করেন এবং এ ব্যাপারে শিক্ষা মন্ত্রণালয় গৃহীত পদক্ষেপের প্রতি পূর্ণ সমর্থন জানান।

প্রতিনিধি দলের সদস্যবর্গ বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অতিরিক্ত ফি আদায়ে তাঁদের উদ্বেগের সাথে সংহতি প্রকাশ করেছেন এমন ২৮ জন শিক্ষাবিদ ও বুদ্ধিজীবীর কথাও উল্লেখ করেন। অতিরিক্ত স্কুল ফি আদায়ের বিরুদ্ধে বিবৃতি দানকারী বিশিষ্টজনদের মধ্যে রয়েছেন অধ্যাপক আনিসুজ্জামান, অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, ড. কাজী খলিকুজ্জামান আহমদ, রাশেদা কে. চৌধুরী, অধ্যাপক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, অধ্যাপক মেসবাহ কামাল প্রমুখ।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, অতিরিক্ত ফি আদায়কারী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সমূহকে অতিরিক্ত টাকা ফেরত দেয়ার জন্য গত ৩ ফেব্রুয়ারি ৭ দিনের সময়সীমা বেঁধে দেয়া হয়েছে। উক্ত সময়সীমার মধ্যে অতিরিক্ত টাকা ফেরত দিতে ব্যর্থ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসমূহের বিরুদ্ধে শিক্ষাবোর্ড ও মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের প্রতিবেদনের ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জনাব নাহিদ বলেন, আদালতের নির্দেশনা , সরকারি আইন কানুন, নাগরিক সমাজ এ সবই অতিরিক্ত ফি আদায়কারী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসমূহের বিরুদ্ধে গৃহিত মন্ত্রণালয়ের পদক্ষেপের ভিত্তি। আদায়কৃত অতিরিক্ত অর্থ ফেরৎ না দিয়ে কেউই পার পাবেন না।

অতিরিক্ত ফি আদায়কারী বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে গৃহিত মন্ত্রণালয়ের পদক্ষেপকে সমর্থন দেয়ায় শিক্ষামন্ত্রী দেশের বিশিষ্টব্যক্তিবর্গকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, তাঁদের সমর্থন মন্ত্রণালয়ের হাতকে আরো শক্তিশালী করবে।

মন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎকালে প্রতিনিধিদলে আরো উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অধ্যাপক হায়াত মামুদ এবং অধ্যাপক এম এম আকাশ। শিক্ষা সচিব মো. সোহরাব হোসাইন, মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ও যুগ্মসচিবগণও এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

3 × 2 =