‘আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন দাউদ ইব্রাহিমের কোনও খোঁজ নেই’ – বিজেপি সাংসদ

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

Dawood Ibrahimদিল্লি : ১৯৯৩ এর মুম্বাই বিষ্ফোরণের ঘটনায় ৩০০ জন নিহত হন। সেই ভয়াবহ ঘটনার নেপথ্য হোতা ভারতের ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’  আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন দাউদ ইব্রাহিমের কোনও খোঁজ ভারত সরকারের জানা নেই”  বললেন ভারতের স্বরাষ্ট্রপ্রতিমন্ত্রী ।  ভারতের কেন্দ্রীয় সংসদে বিজেপি সাংসদ ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হরিভাই চৌধুরীর এ মন্তব্য তুমুল ঝড় তুলেছে বারতের ভেতরে ও বাইরে। অথচ গত মঙ্গলবার ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেছিলেন, ” আমরা বার বার পাকিস্তানের কাছে আবেদন করেছি, দাউদ ইব্রাহিমকে আমাদের হাতে তুলে দিতে। ধৈর্য ধরুন, মুম্বই হামলার মূল অপরাধীর শাস্তি হবে।”পশ্চিমা বিশ্বের এক গোয়েন্দা সংস্থার দেয়া তথ্যানুসারে দাউদ ইব্রাহিমের টেলিফোন সংলাপ রেকর্ডের সূত্র ধরে ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  একথা বলেছিলেন।ভারত সরকারের পক্ষ থেকে সবসময় বলা হয়েছে, ৫৯ বছরের দাউদ ইব্রাহিম পাকিস্তানে রয়েছেন। পাকিস্তান সরকার তাকে নিরাপদ আশ্রয় দিয়েছে। এ মুহূর্তে স্বরাষ্ট্রপ্রতিমন্ত্রীর এমন বিভ্রান্তিকর মন্তব্য মুম্বাই হামলার বিচারে ভারত সরকারের সদিচ্ছা  নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে মনে করছে ভারতের সাধারণ জনগণ।

২০১১ সালে  ৫০ জন শীর্ষ  সন্ত্রাসীর একটি তালিকা (সন্ত্রাসী) তৈরি করেছিলো ভারত সরকার ।সেই তালিকা অনুযায়ী ৮ নম্বরে ছিল আন্ডারওয়ার্ল্ড মাফিয়া ডন  দাউদ ইব্রাহিম এর নাম। পাকিস্তান সরকারকে সেই তালিকাও দিয়েছিলো ভারত। এরপর কেটে গেছে ৪ বছর। দাউদ এখনও অধরা। তবে ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়েছেন, সরকার দাউদের খোঁজের ব্যাপারে অতি তৎপর। ভারতের তদন্তকারী সংস্থাগুলি দাউদের খোঁজে যথাসাধ্য প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন।

মঙ্গলবার সংসদের লোকসভায়  মুম্বাই হামলার মূল পরিকল্পনাকারীর বিচারের দাবি করে এক বিজেপি সাংসদের প্রশ্নের জবাবে  স্বরাষ্ট্রপ্রতিমন্ত্রী হরিভাই চৌধুরী জবাব দেন,  ‘দাউদের কোনও খোঁজ নেই । আগে তার খোঁজ পেলে তবেই তার বিচার করার কথা ভাববে বারত সরকার। “এ মন্তব্য পক্ষান্তরে সরকারের বিরোধী মত তৈরি করেছে। যা নিয়ে মঙ্গলবার ভারতের লোকসভায় বেশ হই চৈ করেন ভারতের সরকার বিরোধীরা।

গত ডিসেম্বরে  পশ্চিমা তদন্তকারী সংস্থা ফোন ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে দাউদ ইব্রাহিমের লোকেশন ট্র্যাক করে। যেখান থেকে সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হয় দাউদ করাচিতেই আছেন। এরপর থেকেই দাউদের খোঁজ নিয়ে আলোচনা শুরু হয় রাজনৈতিক মহলে। এর আগে ভারতের কংগ্রেস সরকারের তরফ থেকেও জানানো হয়েছিল, দাউদের খোঁজ পাওয়া গেছে। সেসব তথ্যের সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন  তুলছে বিরোধিরা । সূত্র: এনডিটিভি

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

nine + 1 =