আশকোনাতে আত্মঘাতী নারী জঙ্গী নিহত :শিশুপুত্র আহত

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

আশকোনার জঙ্গী আস্তানা  সূর্যভিলা থেকে ৩ জনকে বেরিয়ে আসার জন্যে পুলিশ কাঁদানে গ্যাস ছুঁড়তে শুরু করে বেলা সাড়ে ১২ টার পর থেকে । এর পরই  নারী জঙ্গী তার হাতের  গ্রেনেডের পিন খুলে হামলা করার  চেষ্টা করলে গ্রেনেড বিষ্ফোরণে তার মৃত্যু হয় এবং তার সঙ্গে থাকা ৭ বছরের  শিশু পুত্রের হাত পা উড়ে যায় । নিহত নারী জঙ্গি সুমন এর স্ত্রী বলে সন্দেহ করছে পুলিশ ।  তানভির কাদেরের পুত্রকে বের করে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে জানিয়েছে পুলিশ ।

রাজধানীর দক্ষিণখানের আশকোনায় ‘জঙ্গি আস্তানায়’ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অভিযান চলাকালে এক নারী বেরিয়ে আসার সময় সাথে থাকা গ্রেনেডের বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ঘটনাস্থলে এক ব্রিফিংয়ে পুলিশের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ইউনিটের (সিটি) প্রধান মনিরুল ইসলাম জানান, পুলিশের অভিযান চলাকালে ভেতরে থাকা তিন জঙ্গিকে আত্মমর্পণের জন্য বলা হয়। কিন্তু তারা আত্মসমর্পণ করেনি। ভেতর থেকে বেরিয়ে আসার সময় এক নারী জঙ্গি বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে।

মনিরুল ইসলাম বলেন, দুপর সাড়ে ১২টার দিকে বিস্ফোরণে আহ ওই নারীর এক সন্তানকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ওই নারী জীবিত নাকি মৃত তা জানা যায়নি। ভেতরে আরও এক জঙ্গি অবস্থান করছে। অভিযান চলছে।

পুলিশ জানায়, বোরখা পরা ওই নারী ঘর থেকে বেরিয়ে আসার সময় উপস্থিত আইন-শৃংখলারক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা তাকে দুই হাত উপরে তুলতে বললে সঙ্গে সঙ্গে তিনি শরীরে রাখা গ্রেনেড বিস্ফোরণ ঘটান।বিস্ফোরণে এক পুলিশ সদস্যও আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

শনিবার ভোরে সূর্যভিলা নামে তিন তলা ওই বাড়িটি ঘিরে অভিযান শুরু করে পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিট।অভিযান শুরুর পর সকাল সাড়ে ৯টার দিকে চারজন বেরিয়ে আসেন বলে ঘটনাস্থলে সাংবাদিকদের জানান ঢাকা মহানগর পুলিশের কমিশনার মো. আসাদুজ্জামান মিয়া।

সকালে তিনি জানান, বাড়িটির ভেতরে এখনও তিনজঙ্গি অবস্থান করছে। তাদের আত্মসমর্পণের জন্য বলা হচ্ছে। তবে সশস্ত্র ওই জঙ্গিরা হুমকি দিচ্ছে।

পুলিশ জানায়, আত্মসমর্পণ করা জঙ্গিরা হলো- গত ২ সেপ্টেম্বর রাতে মিরপুরের রূপনগরের একটি বাসায় পুলিশের অভিযানে নিহত সাবেক সেনা কর্মকর্তা জাহিদুলের স্ত্রী জেবুন্নাহার ও মেয়ে এবং নব‌্য জেএমবির অন‌্যতম প্রভাবশালী নেতা মুসার স্ত্রী ও মেয়ে।

অভিযান শুরুর পর বাড়িটির ওপরের দুটি ফ্ল্যাটের বাসিন্দাদের সরিয়ে নেওয়া হয়। ঘটনাস্থলে পুলিশের বিশেষ বাহিনী সোয়াত যোগ দিয়েছে।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

7 + two =