কাজ ছাড়াই মাসে ২ লাখ টাকা ভাতা পাবে সুইস নাগরিকেরা

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

প্রত্যেক সুইস নাগরিকের মাসিক আয় নিশ্চিত করতে এক নতুন নিয়ম চালু করছে সুইজারল্যান্ড সরকার। এ নিয়ম চালু হলে বাড়িতে বসেই একজন সুইস নাগরিক প্রতি সপ্তাহে ৪২৫ ব্রিটিশ পাউন্ড বা প্রায় ৪৭,৭২৬ টাকা (মাসে ১৭০০ পাউন্ড বা প্রায় ১,৯০,২০৩ টাকা) করে ‘নিশ্চিত আয়’ করতে পারবে।

বেকার হলেও সুইসদের খাদ্য-বস্ত্র ও জীবনযাত্রার ন্যূনতম মান বজায় রাখতে যাতে কোনও অসুবিধে না হয়, সে-কথা ভেবেই এ টাকা দেবে সুইজারল্যান্ড সরকার। নতুন এ নিয়ম চালু হলে সুইজারল্যান্ডই হবে বিশ্বের প্রথম দেশ, যার প্রত্যেক প্রাপ্তবয়স্ক নাগরিক মাসপিছু ১৭০০ পাউন্ড ভাতা পাবে।

সুইজারল্যান্ডের বুদ্ধিজীবীরা এ প্রস্তাবটি সরকারের কাছে তুলে ধরেন। এ দেশের যেকোনো বাসিন্দা, তা তিনি কর্মরত হো বা বেকার, প্রত্যেকেই এ ভাতা পাবেন, যেহেতু এটা ‘বেকার ভাতা’ নয়। এটা হবে প্রত্যেক প্রাপ্তবয়স্কের জন্যে ১৭০০ পাউন্ড ও অপ্রাপ্তবয়স্কের জন্যে ১০০ পাউন্ড করে একটি মাসিক সরকারি ভাতা।

নতুন এই ভাতা প্রদানের নিয়ম চালু হয়ে গেলে প্রতি বছর সুইস সরকারের বাড়তি খরচ হবে ১৪,৩০০ কোটি পাউন্ড।

অবশ্য অনেকে আবার সুইস বুদ্ধিজীবীদের এ প্রস্তাবের বিরুদ্ধেও মত প্রকাশ করেছেন। এ দেশের রাজনৈতিক দলগুলিও এ ব্যাপারে তেমন কোনো উৎসাহ দেখাচ্ছে না। বিরোধী দলীয়রা বলছেন, নিশ্চিত আয় স্কিম চালু হয়ে গেলে সুইজারল্যান্ডের বাসিন্দারা আর কাজে যাওয়ার নামটিও করবে না।

বিষয়টি আপাতত প্রস্তাব আকারে রয়েছে৷ ভোটাভুটির মাধ্যমে এ প্রস্তাব আইনে পরিণত হয় কিনা, সেদিকেই এখন চোখ রাখছে পুরো বিশ্ব।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

19 − five =