কাশ্মীর ইস্যুতে এবার ভারতের পাশে রাশিয়াও

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

কাশ্মীর ইস্যুতে এবার ভারতের পাশে দাঁড়াল রাশিয়াও। আমেরিকা ও চীনের পর রাশিয়াও পাকিস্তানকে  জানিয়ে দিয়েছে যে, জম্মু-কাশ্মীর ইস্যুতে ভারত যা সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তা করা হয়েছে সংবিধানের নিয়মরীতি মেনেই। তাছাড়া, জম্মু-কাশ্মীর ইস্যুতে রাশিয়া কখনও হস্তক্ষেপ করেনি, এখনও করবে না।

সম্প্রতি জম্মু-কাশ্মীর রাজ্য ভেঙে জম্মু-কাশ্মীর এবং লাদাখ নামে দু’টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল গড়ার সিদ্ধান্তে সিলমোহর দিয়েছে ভারত। ভারতের মোদি সরকারের এই পদক্ষেপকে ‘একতরফা’ এবং ‘অবৈধ’ বলে মন্তব্য করে জাতিসংঘের হস্তক্ষেপের দাবিতে সওয়াল করেছিল পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সরকার ।

কিন্তু, আমেরিকা ও চীনের পথে হেঁটে রাশিয়াও শুক্রবার জানিয়ে দিয়েছে যে কাশ্মীর হল ভারত ও পাকিস্তানের দ্বিপাক্ষিক সমস্যা। তাই, সিমলা চুক্তি (১৯৭২) এবং লাহোর ঘোষণাপত্র (১৯৯৯) মেনে দ্বিপাক্ষিক আলাপ আলোচনার মাধ্যমেই দুই প্রতিবেশী দেশকে এর সমাধান সূত্র বের করতে হবে।

শুক্রবার এক প্রশ্নের উত্তরে রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তরফে জানানো হয়েছে, জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহার করে দিল্লি যে দু’টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল গড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তা করা হয়েছে ভারতীয় সংবিধান মেনেই। মস্কোর আশা, ভারত ও পাকিস্তান এমন কোনও পদক্ষেপ নেবে না,যাতে সংশ্লিষ্ট এলাকায় উত্তেজনা বৃদ্ধি পায়।

রাশিয়া সব সময় চায়, ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় থাকুক। আর রাজনৈতিক ও কূটনৈতিকভাবেই দুই প্রতিবেশী দেশ কাশ্মীর সমস্যার সমাধান সূত্র বের করুক। ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রবীশ কুমার জানিয়েছেন, কাশ্মীর ইস্যুতে পাকিস্তান আন্তর্জাতিক বিশ্বে অতি সামান্যই সমর্থন জোগাড় করতে পেরেছে। অন্যদিকে, ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিনিরাও এই ইস্যুতে মোদি সরকারকে সমর্থন করেছেন। হিউস্টনে ভারতীয় দূতাবাসের বাইরে বিপুল সংখ্যায় জড়ো হয়ে তাঁরা তাঁদের সমর্থন ব্যক্ত করেছেন।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

2 × one =