খুন করতে হ্যাক অ্যাকাউন্ট

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

অভিজিৎ রায়, রাজীব হায়দারদের মতো নামী ব্লগারদের হত্যাকাণ্ডের তদন্তে বড় মোড়। ঢাকা পুলিস জঙ্গি কার্যকলাপে যুক্ত সন্দেহে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে। জানা গিয়েছে, ধৃত জঙ্গি আশফাক উর রহমান নয়ন ওই সংগঠনের তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের প্রধান। সে আরিফ ও অনীক নাম ব্যবহার করেও নাশকতামূলক কাজ চালিয়ে যাচ্ছিল।

পুলিসের অনুমান, আশফাক উর রহমান ওরফে অয়ন আরিফ নামে এই যুবক ব্লগারদের অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে তাদের সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করত। এই যুবক নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন আনসার–আল–ইসলামের সঙ্গে যুক্ত।

আরিফ পলাতক জঙ্গি নেতা মেজর জিয়ার ঘনিষ্ঠ সহযোগী বলে পুলিস জানিয়েছে। ঢাকার উত্তরা ও পল্লবীর কালাপানি এলাকায় ব্লগার হত্যা সংক্রান্ত বিভিন্ন প্রশিক্ষণে সে অংশ নেয়। পরবর্তীকালে সে আনসার–আল–ইসলাম (আনসারুল্লা বাংলা টিম) এর সামরিক বিভাগের তথ্যপ্রযুক্তি শাখার প্রধান হিসাবে নিযুক্ত হয়। সেখান থেকেই শুরু হয় হ্যাকিংয়ের কাজ।

সোশ্যাল মিডিয়া এবং বিভিন্ন ওয়েব পেজে ধর্মীয় উগ্রবাদ বক্তব্য সংবলিত নানারকম লেখা অনুবাদ করে সে নিয়মিত ভাবে আপলোড করত। জেরায় আরিফ জানিয়েছে, ২০১৪ সালে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে কম্পিউটার সায়েন্স বিভাগে পড়াকালীন আনসার–আল–ইসলামে যোগ দেয় সে।

২০১৩ সালে ব্লগার আহমেদ রাজীব হায়দার হত্যাকাণ্ডের পর উঠে আসে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের নাম। সংগঠনটির প্রধান মুফতি জসীমউদ্দীন রাহমানী ইতিমধ্যে ওই মামলার রায়ে দোষি সাব্যস্ত হয়ে জেলে বন্দি রয়েছে। ২০১৫ সালে নিষিদ্ধ করা হয় আনসারউল্লাহ বাংলা টিমকে। ব্লগার অভিজিৎ রায়-সহ বেশ কয়েকটি ব্লগার হত্যার পিছনে রয়েছে ওই সংগঠনটি।

 

 

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

11 − 5 =