গাড়ি চালানোয় ছাড়পত্র পেলো সৌদি নারীরা – মধ্যরাতে জেগে ওঠে রিয়াদ

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

আবার ইতিহাস গড়ল সৌদি আরব। গাড়ি চালানোয় ছাড়পত্র দেওয়া হল মেয়েদের। উল্লাসে মধ্যরাতে রিয়াদ নতুন করে জেগে উঠেছিল। গাড়ি চালিয়ে নিজেদের নতুন স্বাধীনতা উদযাপন করলেন সৌদির মহিলারা। রবিবারই থেকেই মহিলাদের গাড়ি চালানোয় ছাড়পত্র দেওয়ার আইন কার্যকর করা হয়। সৌদি আরবের মত রক্ষণশীল দেশের গাড়ির চালানোর ছাড়পত্র পাওয়াই ছিল তাঁদের কাছে পরম একটি প্রাপ্তি। যার আনন্দে ঘরে বসে থাকতে পারেননি তাঁরা। কেই মা, কেউ মেয়ে আবার কেউ স্ত্রী। যে ভূমিকাই পালন করুন না কেন কখনও পূর্ণ স্বাধীনতা তাঁরা পাননি। যার স্বাদ সামান্য হলেও পেলেন সৌদির মহিলারা।

জুন মাস থেকেই মহিলাদের ড্রাইভিং লাইসেন্স দেওয়া শুরু হয়ে গিয়েছিল। গত সেপ্টেম্বরেই সৌদির যুবরাজ মহম্মদ বিন সলমান ঘোষণা করেছিলেন গাড়ি চালানোয় ছাড়পত্র দেওয়া হবে সৌদির মেয়েদের। এই নিয়ে কম বিরোধিতার মুখে পড়তে হয়নি তাঁকে। যদিও সৌদি আরবেন ডানপন্থীরা যুবরাজের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন। যুবরাজ কিন্তু নিজের সিদ্ধান্তেই অনড় থেকেছেন। সেকারণেই মহিলাদের জন্য আলাদা করে ড্রাইভিং স্কুল খোলা হয়। এমনকি যুবরাজের এই সিদ্ধান্তের জেরে সৌদিতে গাড়ির বাজারে মহিলা ক্রেতার সংখ্যা অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে।

যুবরাজের ঘোষণার পর থেকেই যেন প্রহর গুণছিলেন সৌদির মহিলারা। শনিবার মধ্যরাতেই উল্লাসে গাড়ি নিয়ে রাস্তায় বেরিয়ে পড়েন তাঁরা।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

3 × one =