চট্টগ্রাম পটিয়ায় পুলিশ প্রহরায় কওমীদের মাহফিল, সুন্নীদের বিরুদ্ধে দুটি মামলা

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার একই স্থানে ওয়াজ মাহফিলকে কেন্দ্র করে সুন্নী ও কওমীদের মধ্যে সংঘর্ষের পুলিশ প্রহরায় মাহফিল সম্পন্ন করেছে কওমী আলেমরা।

 অন্যদিকে পুলিশের উপর হামলা ও গাড়ী ভাঙচুরকারী সুন্নীদের বিরুদ্ধে দু’টি পৃথক মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। বুধবার দুপুরে শান্তিরহাটের মাছ বাজার এলাকায় র‌্যাব ও পুলিশ প্রহরায় কওমী আক্বিদাহদের ওয়াজ মাহফিল সম্পন্ন হয়। মাহফিল এলাকায় একজন ম্যাজিষ্ট্রেট, ৬ প্লাটুন পুলিশ ও দুই প্লাটুন র‌্যাবের পাশাপাশি অতিরিক্ত আনসার মোতায়েন ছিল।

পটিয়া থানার পুলিশ জানায়, গতকাল বুধবার বাদে জোহর উপজেলার কুসুমপুরা ইউনিয়নের শান্তিরহাটের মাছ বাজার এলাকায় বাংলাদেশ মুজাহিদ কমিটির ব্যানারে মাহফিলের আয়োজন করে। একই স্থানে ইমাম আজম (রাঃ) সুন্নী কনফারেন্সের উদ্যোগে সুন্নীপন্থীরা মাহফিল করার ঘোষনা দেয়। এতে সংঘর্ষের আশংকা দেখা দিলে পুলিশ সুন্নীপন্থীদের পরের দিন মাহফিল করার পরামর্শ দেন। কিন্তু পুলিশের নির্দেশ উপেক্ষা করে সুন্নীপন্থীরা মঙ্গলবার বিকেলে কওমীপন্থীদের মাহফিলের জন্য তৈরী করা প্যান্ডল মঞ্চ ভাংচুর করে।

এসময় পুলিশ বাধা দিলে পুলিশের সাথে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে সুন্নিপন্থীরা। সংঘর্ষ চলাকালে তারা বেশ কয়েকটি গাড়ী ও দোকান ভাঙচুর করে। এক পর্যায়ে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার আরকান মহাসড়ক দীর্ঘ দেড় ঘন্টা গাড়ী চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে। পটিয়া কালারপুল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ও পটিয়া থানার ৬জন এসআইসহ প্রায় ৩০জনের মতো আহত হয়

পুলিশের উপর হামলা, সরকারী কাজে বাধাদান, গাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগে পটিয়ার ইসলামী ছাত্রসেনা ও সুন্নীপন্থী আড়াইশ জনের বিরুদ্ধে পুলিশ বাদী হয়ে পৃথক দু’টি মামলা দায়ের করেছেন।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

16 − two =