জাতিসংঘের সামনে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ভাস্কর্য স্থাপন

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

জাতিসংঘ সদরদপ্তরের সামনে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা শীর্ষক ভাস্কর্য স্থাপন হলো। উল্লেখ্য, ভাস্কর্যটির নকশা তৈরী করেছেন অলিম্পিক গোল্ড মেডেল প্রাপ্ত শিল্পী খুরশীদ সেলিম এবং ভাস্কর্যটি নির্মাণ করেছেন আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন শিল্পী মৃণাল হক। মুক্তধারা ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা বিশ্বজিত সাহার উদ্যোগে ডাক বিভাগ এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। যুক্তরাষ্ট্রের ডাকবিভাগ বিশ্বজিত সাহার আবেদনের প্রেক্ষিতে নিউইয়র্কের গভর্ণর ২০১৫ এবং ২০১৬ সালে নিউইয়র্ক স্টেট কর্তৃক আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসকে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি দিয়েছে।

096477c7-f21c-4130-a4e6-2368938125f6-300x199

এছাড়াও এই প্রথমবারের মত যুক্তরাষ্ট্রের ডাক বিভাগ একটি স্মারক সীলমোহর চালু করতে চলেছে। মুক্তধারা ফাউন্ডেশন ও বাঙালীর চেতনা মঞ্চের উদ্যোগে স্থাপিত এ ভাস্কর্যটি দেখতে প্রবাসী বাংলাদেশীসহ বিভিন্ন দেশের মানুষ ম্যানহাটানের ১ম এভিনিউ ও ৪৭ স্ট্রীট এর কর্ণারে ভিড় জমান।8180_1031273086911785_6908582280569658249_n-300x225

১ ফেব্রুয়ারী সোমবার বিকেল ৩টায় নিউইয়র্কের ম্যানহাটনে ভাস্কর্যটি উদ্বোধন করেন জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন। পুরো ফেব্রুয়ারী মাস জুড়ে জাতিসংঘের সামনে ভাস্কর্যটি প্রদর্শিত হবে। উদ্বোধন শেষে রাষ্ট্রদূত বলেন, এর মধ্য দিয়ে বাঙালীর জাতীয় জীবনে সংয়োজিত হলো এক নতুন অধ্যায়। আন্তর্জাতিক গৌরব ও সাফল্যের এক নতুন সূচক।

মাসব্যাপী এই অস্থায়ী ভাস্কর্যটির উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন নিউইয়র্কে বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল শামীম আহসান, অভিনেতা জামাল উদ্দিন হোসেন, মুক্তধারার কর্নধার বিশ্বজিৎ সাহা, সাংবাদিক ফাহিম রেজা নূর, বাঙালীর চেতনা মঞ্চের আব্দুর রহিম বাদশা। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান, ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ । নিউইয়র্ক স্টেটের গভর্ণর প্রতিনিধি, জাতিসংঘের প্রতিনিধি, নিউইয়র্ক মেয়রের প্রতিনিধি, নিউইয়র্ক সিটি কম্পট্রলার প্রতিনিধি, কুইন্স বরো প্রেসিডেন্ট/প্রতিনিধি, সহ-পরিচালক পাবলিক আটস নিউইয়র্ক, ইউএনডিপির প্রতিনিধি, টার্কিশ কনস্যুলেট, ভূটান কনস্যুলেটসহ বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

 

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

18 − 1 =