জেবলে নূর পরিবহনের দুই বাসের রেষারেষি- ২ কলেজ শিক্ষার্থী নিহত:আহত ১২

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

ঢাকা বিমানবন্দর সড়কে জেবলে নূর পরিবহনের দু’টি বাসের রেষারেষিতে শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দুই শিক্ষার্থী নিহত হয়েছে।

বাস চাপায় নিহত দিয়া খাতুন মিম

ক্যান্টনমেন্ট থানার এএসআই রেজাউল ইসলাম জানান, ওই সড়কের যানবাহন অন্য সড়ক দিয়ে বের করে দিতে চেষ্টা করছেন তারা। পুলিশ সদস্যরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছেন।রোববার বেলা সাড়ে ১২টার দিকের এ ঘটনায় আহত হয়েছে অন্তত ১২ জন। এদের মধ্যে ৯ জনকে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি করা হয়েছে।

বাস চাপায় নিহত কলেজ ছাত্র আবদুল করিম

নিহত দু’জন হলো— শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী আব্দুল করিম ও একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী দিয়া খাতুন মিম। ঘটনার পর প্রতিষ্ঠানটির বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা অন্তত ৩০টি গাড়ি ভাংচুর করে। বর্তমানে তারা ওই সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করছে।

প্রত্যক্ষদর্শী বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর সাংবাদিকদের জানান, ঘটনাস্থলের পাশেই শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজ। ঘটনার সময় শিক্ষার্থীরা র‌্যাডিসনের পাশ দিয়ে রাস্তা পার হচ্ছিলো। অনেকে বাসের জন্য ফুটপাতে দাঁড়িয়ে ছিলেন। এ সময় জেবলে নূর পরিবহনের একটি বাস এলে শিক্ষার্থীরা উঠতে চেষ্টা করে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী ব্যক্তিদের ভাষ্য, আবদুল্লাহপুর থেকে মোহাম্মদপুর রুটে চলাচলকারী জাবালে নূর পরিবহন লিমিটেডের একটি বাসের চালক হঠাৎ নিয়ন্ত্রণ হারান। এ সময় সড়কের পাশে দাঁড়িয়ে থাকা শিক্ষার্থীদের ওপর বাসটি উঠে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই দুই শিক্ষার্থী প্রাণ হারান। গুরুতর আহত অবস্থায় এক শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী এক ব্যক্তি বলেন, ঘটনাস্থলের পাশেই শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজ। ঘটনার সময় ওই কলেজের শিক্ষার্থীরা র‍্যাডিসন হোটেলের পাশ দিয়ে রাস্তা পার হচ্ছিল। অনেকে বাসের জন্য ফুটপাতে দাঁড়িয়ে ছিল। এ সময় জাবালে নূর পরিবহনের একটি বাস এলে শিক্ষার্থীরা তাতে ওঠার চেষ্টা করে। সে সময় জাবালে নূর পরিবহনের আরেকটি বাস বাম পাশ দিয়ে ঢুকে দুই শিক্ষার্থীদের চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলে তাদের মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে প্রতিষ্ঠানের অন্য শিক্ষার্থীরা এসে সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে এবং কয়েকটি যানবাহন ভাঙচুর করে।

খবর পেয়ে শিক্ষার্থীরা এসে সড়কে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে ও কয়েকটি যানবাহন ভাংচুর চালায়।
শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের শিক্ষক আরিফুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা এখন পর্যন্ত আমাদের দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যুর বিষয়ে নিশ্চিত হয়েছি।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

9 − four =