ঝোড়ো হাওয়াসহ শিলাবৃষ্টি সারা দেশে

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

রাজধানীসহ দেশের অনেক স্থানে বুধবার ঝোড়ো হাওয়াসহ শিলাবৃষ্টি হয়েছে। শিলার আঘাতে রাজধানীতে আহত হয়েছে প্রায় ১৩ জন স্বাস্থ্যকর্মী।চাকরি জাতীয়করণের দাবিতে ঢাকায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে অনশন করতে আসা কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রোভাইডাদের ১৩ জন শিলার আঘাতে আহত হয়ে চিকিৎসা নিয়েছেন হাসপাতালে।ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ফাঁড়ি পুলিশের পরিদর্শক মোজাম্মেল হক জানান, অনশনে আসা ১৩ জনকে দুপুরে হাসপাতালে আনা হয়। তারা সবাই কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রোভাইডার (সিএইচসিপি)।
নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার ও পটুয়াখালীতে বজ্রপাতে দুইজন, নারায়ণগঞ্জে বিদ্যুতস্পৃষ্ট হয়ে এক রিক্সাচালক এবং নরসিংদীতে দেয়াল ধসে দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে। ঝড়ে মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে স্কুলের চাল ভেঙ্গে আহত হয় ২৫ শিক্ষার্থী। সিরাজগঞ্জে যমুনা নদীতে নৌকাডুবিতে ২০টি গরু নিখোঁজ রয়েছে। অনেক স্টল ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় সাময়িক বন্ধ রাখা হয় একুশে বইমেলা। রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে দেখা দেয় জলাবদ্ধতা। কর্দমাক্ত হয়ে ওঠে রাস্তাঘাট ও অলিগলি। ঝড়ে তার ছিঁড়ে নগরীর অনেক এলাকায় সৃষ্টি হয় বিদ্যুত বিভ্রাট। দেশের বিভিন্ন স্থানে আমের মুকুলসহ রবিশস্যের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। সাময়িক দুর্ভোগ পোহাতে হলেও নগরবাসীর জীবনে প্রশান্তি এনে দেয় বৃষ্টি। গত কয়েক সপ্তাহ ধরে অনুভূত হচ্ছিল মাঝারি ধরনের গরম। দেশের সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা উঠে গিয়েছিল যথাক্রমে ৩৫ ও ২০ ডিগ্রী সেলসিয়াসে। বুধবার দুপুরের বৃষ্টিতে প্রশান্তি পায় দেশবাসী। এদিন দুপুরের দিকে রাজধানী ঢাকার আকাশ ছেয়ে গেল ধূসর মেঘে। পূবালী লঘুচাপের প্রভাবে বুধবার ঢাকা ও আশপাশের এলাকায় বৃষ্টির পূর্বাভাস আবহাওয়া অধিদফতর আগেই দিয়ে রেখেছিল। সকাল থেকে তপ্ত রোদের পর মাঝ দুপুরে আঁধার হয়ে আসে রাজধানীর আকাশ। তবে ফাগুনের এ সময় তা বেমানান। শীঘ্রই সশব্দে শিলা পড়তে লাগল, নামল ঝুম বৃষ্টি। ভরা বসন্তে যেন নেমে এলো ঘোর বর্ষা। কর্মব্যস্ত ঢাকার রাজপথে বেসামাল পথচারীদের তখন মাথার ওপর একটুখানি ছাউনি খুঁজতে ছোটাছুটি করতে দেখা গেছে। হঠাৎ বৃষ্টিতে কেউ কেউ তো ভিজে সারা। ঝড়ো হাওয়ার মধ্যে উড়তে থাকে ধুলা, ঝরা পাতা। আলো কমে আসায় জ্বলে ওঠে গাড়ির হেডলাইট।

এবার ফাল্গুন এসেছে উষ্ণতা নিয়ে। শীতের দুয়ারে ঝুপ করে ঝাঁপ ফেলে কয়েক দিন ধরেই মৃদু লু হাওয়া বইছিল। বুধবারের হঠাৎ বৃষ্টি এতে শীতল পরশ নিয়ে এলো।বৃষ্টিতে তলিয়ে যায় রাজধানীর মালিবাগ চৌধুরীপাড়া থেকে কাকরাইল মোড়ের আগ পর্যন্ত রাস্তা। রাজধানীর একাধিক গুরুত্বপূর্ণ সড়কে চলাচল ব্যাহত হয়। রাস্তা পানিতে ডুবে যায়। ইঞ্জিনে পানি প্রবেশ করায় মাঝপথে বন্ধ হয়ে থাকে একাধিক গাড়ি। রাস্তায় পানি থাকায় হাতে জুতা নিয়ে পথ চলতে শুরু করে পথচারীদের অনেকে। অনেক পথচারীকে পা তুলে জুতার পানি বের করতে দেখা গেছে। শান্তিনগর এলাকায় একাধিক স্কুল-কলেজ থাকায় বেশি সমস্যায় পড়েছে শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকরা। অধিকাংশ মেয়ে শিক্ষার্থীকে রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে। এ সড়কে ফ্লাইওভারের কাজ চলায় অনেক গর্ত থাকায় গাড়ি চালাতে ভয় পাচ্ছেন বলে জানান চালকরা। ঝড়-বৃষ্টিতে বিভিন্ন স্থানে গাছও ভেঙ্গে পড়ে। কাকরাইল মসজিদ সংলগ্ন প্রধান বিচারপতির বাসভবনের সামনে গাছ ভেঙ্গে পড়ে থাকতে দেখা গেছে। হাইকোর্টের সামনে ঝড়োবাতাসে গাছ ভেঙ্গে পড়ে দেয়ালের বেশ কিছু অংশ ভেঙ্গে গেছে। শিলা বৃষ্টির পর কাকরাইল, প্রেসক্লাব, মতিঝিল, আব্দুল গণি রোড, সচিবালয়, পল্টনসহ বিভিন্ন এলাকার রাস্তায় শিলার স্তূপ জমে থাকতে দেখা গেছে। গাছে থাকা পাতাগুলো শিলার আঘাতে ছিন্নভিন্ন হয়ে যায়। এসব এলাকায় জলাবদ্ধতারও সৃষ্টি হয়। সচিবালয়ের সামনের রাস্তায় মেহগনি গাছের পাতার স্তর জমেছিল। সচিবালয়ে ২ নম্বর গেট দিয়ে প্রবেশ করে দেখা গেছে, আম ও ছাতিম গাছের পাতার কারণে জমিন দেখা যাচ্ছে না। ঝড়ে পড়েছে ছোট ছোট আম। সচিবালয়ের ভেতরে রাখা সব গাড়ির গায়ে সবুজ পাতা লেগে আছে। সচিবালয়ের ৬ নম্বর ভবন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ভবনসহ বিভিন্ন স্থানে সৃষ্টি হয়েছে জলাবদ্ধতা। কাঠ বাদামের ছিন্নভিন্ন কচি পাতায় ছড়াছড়ি সচিবালয়ে। মঙ্গলবার রাতেও রাজধানীর মিরপুর, শেওড়াপাড়াসহ বেশ কিছু এলাকায় ভারি বর্ষণ হয়েছে।

আবহাওয়া অধিদফতর জানায়, বুধবার রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় বৃষ্টি হয়েছে। এ দিন মাদারীপুরে ৪৭ সেন্টিমিটার, গোপালগঞ্জে ১৮ সেমি, সীতাকু-ে ৪২ সেমি, রাঙ্গামাটিতে ৬১ সেমি, কুমিল্লায় ১৭ সেমি, চাঁদপুরে ১১ সেমি, মাইজদীকোর্টে ৬ সেমি, ফেনীতে ৩০ সেমি, হাতিয়ায় ১ সেমি, খুলনায় ২৩ সেমি, মংলায় ১০ সেমি ও সাতক্ষীরায় ৭০ সেন্টিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। আবহাওয়া অধিদফতরের আবহাওয়াবিদ মোঃ গিয়াসউদ্দিন জনকণ্ঠকে জানান, ঢাকায় এক মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে। রাজধানীর বাইরে মুন্সীগঞ্জসহ বিভিন্ন অঞ্চলে বৃষ্টি ও শিলাবৃষ্টি হয়েছে। তাপমাত্রা হঠাৎ বেড়ে যাওয়ার কারণে শিলাবৃষ্টি হয়েছে। এ সময়ে এমনটা হওয়া স্বাভাবিক। সারাদেশেই বৃষ্টির প্রবণতা রয়েছে। বৃষ্টির কারণে তাপমাত্রাও কমে যাবে। বৃহস্পতিবার দুপুরের পর বৃষ্টি কমে যাবে।

হঠাৎ বয়ে যাওয়া ঝড়ে ঘরের দেয়াল ধসে চুমকি (৭) ও বিথি (৯) নামে দুই বোনের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। নরসিংদী সদর উপজেলার নুরালাপুর ইউনিয়নের নোয়াপাড়া গ্রামে বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টায় এ ঘটনা ঘটে। মাধবদী ফাঁড়ি পুলিশের ইনচার্জ ইকবাল হোসেন জানান, নিহতরা ওই গ্রামের হালিম মিয়ার কন্যা। ঝড়ে ঘরের চালা উড়ে যায়। প্লাস্টারবিহীন দেয়াল ধসে ঘরের চৌকিতে পড়ে। এ সময় শিশু দুটি চৌকিতে বসা ছিল। ঝড়ে একই উপজেলার মেহেরপাড়া ইউনিয়নের খালপাড়ার মোতাহার উইভিং ফ্যাক্টরি নামক একটি কাপড় প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান এবং একটি গাছ উপড়ে পড়ে নরসিংদী সরকারী মহিলা কলেজের সীমানা প্রাচীর ধসে পড়ে।
বাউফলে বজ্রপাতে আব্বাস মীর (৪০) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার সকালে নাজিরপুর ইউনিয়নের বাকলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আব্বাসের বাবার নাম আলী আহম্মেদ মীর। ঘটনার দিন হঠাৎ করে দমকা বাতাস ও বৃষ্টি শুরু হলে আব্বাস বাড়ির উঠানে রাখা ধানের গোলা ঢাকার জন্য ঘর থেকে প্লাস্টিকের চট নিয়ে বেড় হলে বজ্রপাতের শিকার হন।

সোনারগাঁ, নারায়ণগঞ্জ থেকে জানান, নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে ঝড়ের সময় বিদ্যুতস্পৃষ্ট হয়ে এক রিক্সাচালকের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার দুপুরে বারদী ইউনিয়নের শান্তিরবাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহতের নাম মোস্তফা মিয়া। লাশ উদ্ধারের পর পরিবারের কাছে হস্তাস্তর করেছে সোনারগাঁ থানা পুলিশ।

মঙ্গলবার রাতে ও বুধবার সকালে জেলার বিভিন্ন স্থানে প্রচুর বৃষ্টিপাত ও হালকা দমকা হাওয়ার কারণে রবিশস্যের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। মাদারীপুরের শিবচর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সালাউদ্দিন জানান, হঠাৎ বৃষ্টিপাতের কারণে জেলার সরিষা, কালাই, মসুর ও কালোজিরাসহ বিভিন্ন রবিশস্যের ক্ষতি হয়েছে। এছাড়া আমের মুকুলের বেশ ক্ষতি হয়েছে বলে জানান তিনি। আড়াইহাজার উপজেলায় আকস্মিক ঝড়ে কয়েকটি গ্রামের শতাধিক ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। ঝড়ের সময় বজ্রপাতে মোস্তফা (২২) নামে এক ব্যক্তি মারা গেছেন। এছাড়াও মেঘনা নদীতে পড়ে এক ট্রলার চালক নিখোঁজ রয়েছে। এদিকে ঝড়ের সময় দেয়াল চাপায় ২টি গরু মারা গেছে। এ সময় অন্তত ৫ জন আহত হয়েছে।ঝড়ের সময় উপজেলার উচিতপুরা ইউনিয়নের বড় বাড়ৈপাড়া গ্রামের আঃ আজিজের পুত্র মোস্তফা (২২) বজ্রপাতে মারা যান। একই সময় উপজেলার খাগকান্দা নৌপুলিশ ফাঁড়ির মেঘনা নদীতে পুলিশের টহলরত ট্রলারে থাকা চালক ইউনুছ আলীর ওপর বজ্রপাত হলে সে মেঘনা নদীতে পড়ে গিয়ে নিখোঁজ হয়। ওই সময় সঙ্গে থাকা ২ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে বলে আড়াইহাজার থানার ওসি সাখাওয়াত হোসেন জানান।

খুলনায় কয়েক দফা মুষলধারে বজ্রসহ বৃষ্টি হয়েছে, বয়ে যায় দমকা হাওয়া। মঙ্গলবার রাত ৩টা থেকে বুধবার বেলা ৩টা পর্যন্ত এ বৃষ্টিপাত হয়। মোট ৬০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে বলে স্থানীয় আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে। এদিকে ভ্যাপসা গরমের পর কয়েক দফা বৃষ্টিতে নাগরিক জীবনে স্বস্তি ফিরে এসেছে।কখনও মুষলধারে কখনও হালকাভাবে টানা ৪ ঘণ্টার বৃষ্টিপাত হয়েছে বরিশালে। বুধবার ভোর ৫টা থেকে সকাল ৯টা পর্যন্ত বজ্রসহ বৃষ্টিপাতের সঙ্গে দমকা হাওয়া বয়ে গেছে।এদিকে, বৈরী আবহাওয়ার কারণে বরিশালের অভ্যন্তরীণ রুটের ছোট ছোট নৌযান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে নৌ-বন্দর কর্তৃপক্ষ। পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত এ নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে বলে জানিয়েছেন নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক বিভাগের উপ-পরিচালক আবুল বাশার মজুমদার। মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে বুধবার আকস্মিক ঝড়ে একটি উচ্চ বিদ্যালয়ের টিনশেড ভবনের ছাদ ভেঙ্গে ২৫ ছাত্রছাত্রী আহত হয়। ঝড় ও বৃষ্টিতে গাছের ডাল ভেঙ্গে পড়ে অনেক রাস্তার যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। এই অঞ্চলের আলু ভর্তি ক্ষেতে পানি জমে গেছে। বুধবার সকালে উপজেলার কেয়াইন ইউনিয়নের কাজীশাল হাজীগাও হুমায়ুন মোল্লা উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণীর পাঠ চলাকালীন সময় টিনসেটের ঝুঁকিপূর্ণ একটি একতলা ভবনের ছাদের টিন ঝড়ে ভেঙ্গে পড়ে ও কমপক্ষে ২৫জন ছাত্রছাত্রী আহত হয়। সিরাজদিখান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রওনক অফরোজা সুমা ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল বারেক ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে জানান, ২৫ জন ছাত্রছাত্রী আহত হয়েছে।স্টাফ রিপোর্টার সিরাজগঞ্জ থেকে জানান, বুধবার সন্ধ্যা ৬ টায় সিরাজগঞ্জের এনায়েতপুরে যমুনা নদীতে ২৫ গরু নিয়ে নৌকাডুবির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ৫টি গরু সাঁতরিয়ে তীরে উঠলেও বাকি ২০টি গরু ও নৌকা নিখোঁজ রয়েছে।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

4 − 1 =