টকিংটম Samsung Galaxyমোবাইলে বিস্ফোরণ, আক্রান্ত শিশু

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

যেতে যেতে বা বাড়িতে অবসর সময়ে স্মার্টফোন হাতে থাকলে ‘ক্যান্ডি ক্রাশ’ বা ‘মাই টকিং টম’ খেলতে আমরা ভালবাসি,  কিন্তু সেই গেম খেলতে গিয়েই যে মাত্র চার বছরের এক শিশুর হাতের মোবাইল ফোনে বিস্ফোরণ ঘটবে, এমনটা আর কে আঁচ করতে পেরেছিল ?

আগে স্যামসাংয়ের গ্যালাক্সি নোট ৭ হ্যান্ডসেটে বিস্ফোরণের প্রচুর অভিযোগ উঠেছিল। এমনকী, বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক বিমান সংস্থা স্যামসাংয়ের ফোন নিয়ে বিমানে ওঠা নিষিদ্ধ বলে ঘোষণা করে। আর এবার অভিযোগ উঠলো জনপ্রিয় দক্ষিণ কোরীয় সংস্থাটির J7(2016) মডেলটির বিরুদ্ধে। আক্রান্ত শিশুটি সেই সময় হ্যান্ডসেটে গেম খেলছিল। তাঁর পরিবারের দাবি, খেলতে খেলতে ফোনটি গরম হয়ে ওঠে ও তাতে বিস্ফোরণ ঘটে।

যদিও বিস্ফোরণে ওই শিশুর খুব একটা ক্ষতি হয়নি। ঘটনাটি ঘটেছে পাকিস্তানে। নওরিন এহসান নামের এক মহিলা অভিযোগ করেছেন, ‘মাই টকিং টম’ খেলার সময় জে৭ মডেলটি অত্যাধিক গরম হয়ে ওঠে ও বিস্ফোরণ ঘটে। ফেসবুকে এই ঘটনার কথা তিনি পোস্ট করে তিনি জানিয়েছেন, সম্ভবত ব্যাটারি থেকেই বিস্ফোরণ ঘটেছে। বিস্ফোরণে ব্যাটারিটি নষ্ট হয়ে গিয়েছে, পুরো ফোনটিই বর্তমানে অকেজো হয়ে পড়েছে। পোড়া হ্যান্ডসেটের ছবি ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়ে উঠেছে।

এখনও পর্যন্ত এই ঘটনায় স্যামসাংয়ের তরফে কোনও প্রতিক্রিয়া জানানো হয়নি। দক্ষিণ কোরীয় সংস্থাটি ছাড়াও লেনোভোরও হ্যান্ডসেটে বিস্ফোরণের অভিযোগ উঠেছে। লেনোভো কে৪ নোট মডেলের ব্যাটারিতে বিস্ফোরণের ছবিও ভাইরাল হয়। বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, মোবাইল ফোন সাবধানে ব্যবহার করুন। চার্জ দেওয়া অবস্থাতে কথা বলবেন না ব্যবহার করবেন না। হ্যান্ডসেট গরম হয়ে উঠলে বা ওভারহিটিং ইস্যু থাকলে অবিলম্বে সার্ভিস সেন্টারের সঙ্গে যোগাযোগ করুন।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

4 × five =