তথ্যফাঁস কাণ্ড, বন্ধ হয়ে যাচ্ছে কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

ফেসবুক থেকে ডেটা চুরির কেলেঙ্কারিতে জড়িয়েছিল কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা। অভিযোগ উঠেছিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে নির্বাচনের আগে ট্রাম্পের হয়ে সংস্থাটি ক্যাম্পেন করেছিল। সেই কারণে ফেসবুক থেকে ডেটা চুরি করে তারা। তাদের তথ্য প্রভাবে ফেলে নির্বাচনের ক্যাম্পেনে। এরপরই বিতর্ক দানা বাঁধে। ফেসবুক থেকে তথ্য চুরির অভিযোগে মার্চ থেকে গ্রাহক হারাতে থাকে কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা। সংস্থার তরফে একটি বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, তারা আর ব্যবসা চালাচ্ছে না। সংস্থার মুখপাত্র ক্লারেন্স মিশেল জানিয়েছেন, গত কয়েক মাস ধরে কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা একাধিক ভিত্তিহীন অভিযোগের শিকার হয়েছে। সংস্থার কর্মীরা সম্পূর্ণ নৈতিক ও আইনিভাবে কাজ করা সত্ত্বেও শুধু মিডিয়া কভারেজের উপর ভিত্তি করে অনেক সাপ্লায়ার ও কাস্টমার কোম্পানি ছেড়ে চলে গিয়েছে। ফলে কোম্পানি স্থির করেছে, তারা আর ব্যবসা করবে না।

এবছর মার্চ মাসে বিতর্কে জড়ায় কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা। ২০১৬ সালে মার্কিন নির্বাচনের সময় ডোনাল্ড ট্রাম্পের ক্যাম্পেনের জন্য ফেসবুক থেকে তথ্য চুরি করত তারা। ফলশ্রুতি হিসেবে সেই মাসেই সাসপেন্ড করা হয় কেমব্রিজ অ্যানালিটিকার চিফ এক্সিকিউটিভ আলেকজান্ডার কোগানকে। গত মাসে সংস্থাটি জানায়, তাদের কাছে মার্কিন নাগরিকদের ৩০ মিলিয়ন লাইসেন্সড রেকর্ড রয়েছে। আলেকজান্ডার কোগানের কুইজ অ্যাপ থেকে সেই তথ্যগুলি নেওয়া হয়। কিন্তু সেগুলি তারা মুছে ফেলেছে। কিন্তু তাতে আদতে কোনও কাজ হয়নি। ক্রমাগত গ্রাহক হারাতে থাকে সংস্থাটি। ফলে এখন ব্রিটেনে দেউলিয়া অবস্থাতে কাজকর্ম শুরু করেছে তারা। আমেরিকাতেও খুব তাড়াতাড়ি এই কাজ শুরু করে হবে।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

five − one =