ত্রিপুরাতে লেনিনের মূর্তি গুড়িয়ে দেয়ার পর ভারত জুড়ে মূর্তি ভাঙার হিড়িক

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

লেনিন, পেরিয়ার, শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়, আম্বেদকরের পর মহাত্মা গান্ধী। মূর্তিভাঙার ধারা অব্যাহত রইল ভারতে । এবার হামলা শিকার মহাত্মা গান্ধীর মূর্তি।  ঘটনাটি ঘটেছে কেরলের কান্নুরে। অন্য একটি ঘটনায় আম্বেদকরের মূর্তির মুখে রং লেপে দিল অজ্ঞাত পরিচয় দুষ্কৃতীরা।

ঘটনাটি ঘটেছে তামিলনাড়ুর তিরুভত্তিয়ুরে। মূর্তি ভাঙার হিড়িক পড়েছে গোটা দেশ জুড়ে। একদিন আগেই শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের মূর্তিতে হামলার ঘটনা ঘটেছে কলকাতার কালীঘাট এলাকায়। হাতুড়ির বাড়িতে মূর্তির মুখাবয়বে ভাঙন ধরানোর পাশাপাশি লেপে দেওয়া হয়েছে কালি। এই ঘটনায় ইতিমধ্যেই ছ’জনকে যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সূত্রের দাবি, আটকরা নকশালপন্থী ব়্যাডিক্যাল সংগঠনের সদস্য।

উল্লেখ্য, সোমবার ত্রিপুরার রাজধানী আগরতলা থেকে ৯০ কিলোমিটার দূরে বেলোনিয়ায় গুঁড়িয়ে দেওয়া হয় লেনিনের মূর্তি। তারপরই রাজ্য জুড়ে শুরু হয় প্রবল হিংসা। অভিযোগ, পালা বদলের পরই আগরতলার সিটু অফিস দখল করে নিয়েছে বিজেপি সমর্থকরা। রাজ্য জুড়ে সিপিএম কর্মীদের উপর হামলা চালাচ্ছে গেরুয়া দলবল। ইতিমধ্যে পরিস্থিতি সামাল দিতে আসরে নেমেছে বিশাল পুলিশ বাহিনী। সংবেদনশীল এলাকাগুলিতে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে বলে খবর। ত্রিপুরায় ক্ষমতা বদলের সঙ্গে সঙ্গে দুটি লেনিনের মূর্তি ভাঙা হল। এই প্রসঙ্গে স্থানীয় সিপিএম নেতা

হরিপদ দাস বলেন, বেলোনিয়ার গর্ভনমেন্ট কলেজ লাগোয়া লেনিন মূর্তি ভাঙার সময় বিজেপি সমর্থকরা ভারত মাতার নামে জয়ধ্বনি করছিল। এরপরেই বামেদের দিকে পালটা বক্তব্য ছুড়ে দেয় বিজেপি। অভিযোগ, দিনের পর দিন বিজেপি সমর্থকেদর উপরে হামলার ঘটনা ঘটেছে ত্রিপুরায়। সেই ক্ষোভেরই বহিঃপ্রকাশ হয়েছে মূর্তি ভাঙার মাধ্যমে।

তবে মূর্তি ভাঙার ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। যারা এই ধরনের কাজ করছে তাদের বিরুদ্ধে আইননানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও বলেছেন। এদিকে ত্রিপুরায় লেনিন মূর্তি ভাঙার প্রতিবাদ করেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একই সঙ্গে শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের মূর্তিতে কালি লেপার ঘটনায় দ্রুত প্রশাসনিক পদক্ষেপের ব্যবস্থা করেছেন।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

two × 2 =