থার্টিফার্স্টে চার দেয়ালের অনুষ্ঠানেও অনুমতি লাগবে : ডিএমপি

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

বর্ষবরণকে কেন্দ্র করে থার্টিফাস্ট নাইটে রাজধানীতে উন্মুক্ত স্থানে সব ধরনের অনুষ্ঠান নিষিদ্ধ করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)। এমনকি এবারে বাসার ছাদেও ব্যক্তিগতভাবে কোনো অনুষ্ঠান উদযাপন করা যাবে না। তবে অনুমতিসাপেক্ষে চার দেয়ালের মধ্যে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা যাবে।

আজ শনিবার দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশের পক্ষ থেকে নাগরিকদের জন্য এই নির্দেশনা দেওয়া হয়।

ডিএমপি কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, ‘থার্টিফার্স্টকে কেন্দ্র করে মাদক ব্যবহারের একটা প্রবণতা দেখা যায়। তাই মাদক নিয়ন্ত্রণে পুলিশ সদস্যরা ও গোয়েন্দারা তৎপর থাকবে। ৩১ ডিসেম্বর সন্ধ্যা থেকে পরের দিন ভোর পর্যন্ত ঢাকা মহানগরীর সব বার ও মদের দোকান বন্ধ থাকবে।’

‘একই সঙ্গে রাজধানীজুড়ে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা দেওয়ার জন্য পোশাকধারী পুলিশের পাশাপাশি সাদা পোশাকেও পর্যাপ্ত সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন থাকবে। আর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে নিরাপত্তার জন্য ডিএমপির সোয়াট ও বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট থাকবে।’

ঢাকার পুলিশপ্রধান আরো জানান, গুলশান, বনানী, বারিধারা ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় ৮টার পর বহিরাগতদের প্রবেশ নিষিদ্ধ। গুলশান-বনানী এলাকায় আমতলি ও কাকলি ক্রসিং দিয়ে প্রবেশ করা যাবে। আর রাত ৮টার পর এই সব এলাকায় প্রবেশের সময় নাগরিকদের তল্লাশি করা হবে। তল্লাশির পর তাদের পরিচয় নিশ্চিত হয়ে তবেই প্রবেশ করতে দেওয়া হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় স্টিকারযুক্ত গাড়ি শাহবাগ ও নীলক্ষেত এলাকা দিয়ে প্রবেশ করতে পারবে। আর ছাত্রদের আইডি কার্ড দেখিয়ে প্রবেশ করতে হবে। সে কারণে বহিরাগতদের ওই এলাকার প্রবেশ না করতে অনুরোধ জানান ডিএমপি কমিশনার।

আছাদুজ্জামান মিয়া আরো জানান, এবারে থার্টিফার্স্ট উদযাপনে সুনির্দিষ্ট কোনো হুমকি নেই। তবে যদি সন্দেহজনক কোনো ব্যক্তি বা বস্তুর সন্ধান কেউ পান সঙ্গে সঙ্গে তা পুলিশকে জানাতে অনুরোধ করেন তিনি।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

twenty − two =