নেপালের ধ্বংসস্তুপ থেকে ৫ দিন পর মৃত্যুঞ্জয়ী কিশোর পেমা সহ ২ জনকে উদ্ধার

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

Boy-Pemaহাতের কাছে থাকা হোটেলের মাখন এবং ভেজা কাপড়ের স্তূপ নিংড়ে নেয়া পানীয় জল  কিশোর পেমা লামা কে বাঁচিয়ে রেখেছে ৫দিন। ।  ঘিরে ধরছিল প্রতিমুহুর্তে মৃত্যুভয়। কিন্তু, আশা ছাড়েনি পেমা। তার কাছে পাঁচদিন পর পৌছলেন উদ্ধারকারী দলের সদস্যরা। ধ্বংসস্তূপ সরিয়ে উদ্ধার করা হল পেমাকে। এখন অনেকটাই সুস্থ পেমা।প্রতিকূলতার বিরুদ্ধে পেমার লড়াইকে সেলাম ঠুকছেন চিকিৎসকেরাও। একই ভাবে আরেক নারীকে উদ্ধার করা হয়েছে, ধ্বংসস্তূপের নীচে তিনটি মৃতদেহের মাঝখানে বন্দী ছিলেন সেই নারী । এছাড়া বিবিসি সূত্রে প্রকাশ, নেপালে বসবাসকারী  ১শ’২০ জন ব্রিটিশ নাগরিক ফিরে গেছেন ব্রিটেনে।

২৫ এপ্রিল সকালে ভূমিকম্পে ভেঙে পড়েছিল  কাঠমুন্ডুর  সেই  হোটেল ভবন।ধ্বংসস্তূপের  নীচে চাপা পড়েছিল ১৫ বছরের পেমা। ভূমিকম্পের পাঁচদিন পর পেমাকে খুঁজে পেলেন উদ্ধারকারীরা।  পাঁচদিনের দুঃস্বপ্নের শেষ। সুস্থ হয়ে উঠছে পেমা। পঁচিশের সকালে হোটেলের একতলায় ব্রেকফাস্ট সারছিল পেমা। কিছু বুঝে ওঠার আগেই ভূমিকম্প। হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ল গোটা হোটেলটাই।  তারপর ধ্বংসস্তুপের তলায় আটকে থাকা টানা পাঁচটা দিন।

এভাবেই ভূমিকম্প বিধ্বস্ত বিভিন্ন এলাকায় প্রাণের সন্ধানে ছুটে বেড়াচ্ছেন উদ্ধারকারী দল।  লাফিয়ে বাড়ছে ভূমিকম্পে মৃতের সংখ্যা। নেপালের প্রধানমন্ত্রী বলেছেন মৃতের সংখ্যা  হয়তো ছাড়িয়েছে ১০ হাজার। তবে  নেপাল সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে মুতের সংখ্যা  ছ’হাজার একশ’ । আবহাওয়ার প্রতিকূলতা এবং স্থান সংকুলতার অভাবে ব্যাপক বাবে উদ্ধারকারী দল পৌঁছাতে পারছে না নেপালে। এ পরিস্থিতিতে ত্রাণের অপ্রতুলতা নিয়ে ক্ষোভ বাড়ছে প্রত্যন্ত এলাকাগুলিতে।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

3 × five =