পদোন্নতির চিঠি হাতে ডাকাতের গুলিতে প্রাণ হারালেন মো: ওয়ালিউল্লাহ

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

Savar Bank Robbery 02পদোন্নতির চিঠি হাতে পেতে না পেতেই ডাকাতের গুলিতে প্রাণ হারালেন মো: ওয়ালিউল্লাহ।  ২১ এপ্রিল মঙ্গলবার লোমহর্ষক  ডাকাতির সময়ে ডাকাতদের হাতে প্রাণ যায় তাঁর। বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংক কাঠগড়া শাখার ব্যবস্থাপক মো. ওয়ালিউল্লাহর গতকাল পদোন্নতির চিঠি পেয়েছিলেন। জ্যেষ্ঠ নির্বাহী কর্মকর্তা পদে পদোন্নতির সেই চিঠি দুপুরে তাঁর হাতে পৌঁছেছিল। আজ বুধবার পুলিশের অনুমতি নিয়ে ব্যাংকের পরিদর্শক দলটি সকাল নয়টা ৪০ মিনিটে ব্যাংকের ভেতরটা পরিদর্শন করেন। ব্যাংক কর্তৃপক্ষের নির্দেশে ব্যাংকের বেশ কয়েকজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করতে গেছেন। তাঁদেরই একজন এ তথ্য জানিয়ে সূর্যবার্তাকে বলেন,নিহত ওয়ালিউল্লার গ্রামের বাড়ি জামালপুরে। তিনি তিন ছেলেমেয়ে ও স্ত্রীকে নিয়ে সাভারে ভাড়া বাসায় থাকতেন।
কাঠগড়া বাজার এলাকায় ব্যাংক বলতে এই একটি ব্যাংকই রয়েছে। স্থানীয় ব্যবসায়ীরা তাঁদের সব লেনদের এই শাখার মাধ্যমেই করতেন। গতকাল ব্যাংক ডাকাতির পর থেকে এখনো ব্যাংকটি তালাবদ্ধ অবস্থায় রয়েছে। পুলিশের অনুমতি পেলে ব্যাংকের লেনদেন শুরু হবে বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।
ব্যাংকের পাশেই রয়েছে হাজী নজমুদ্দিন সুপার মার্কেট ও কাঁচাবাজার। মার্কেটের দোকান মালিক ও ব্যাংক ভবনের মালিক মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ডাকাতদের হাতে সাতজনের প্রাণ হারানোর ঘটনায় শোক প্রকাশ করে আজ এই মার্কেট ও বাজার বন্ধ রাখা হয়েছে। মার্কেটের সামনে কালো পতাকা লাগানো হয়েছে।

আশুলিয়ার কাঠগড়ায় পোশাক কারখানায় ভরা এলাকায় গতকাল বেলা আড়াইটা থেকে পৌনে তিনটার মধ্যে ডাকাতির ঘটনাটি ঘটে। ডাকাতদের হামলায় ব্যাংকের ভেতরে ব্যবস্থাপকসহ তিনজন ও ডাকাতদের ঠেকাতে গিয়ে গুলি ও বোমায় চারজন নিহত হন। টাকা লুট করে পালানোর সময় জনতার প্রতিরোধের মুখে পড়ে গুলি করে এবং গ্রেনেড চার্জ করে ৭ জনকে হত্যা করে ডাকাতের দল ।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

fourteen + thirteen =