পিছিয়ে গেল ইউএস নয়া এইচ-ওয়ান বি ভিসা চালুর প্রক্রিয়া

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

কিছু সংস্থার কথা মাথায় রেখেই আগামী ৩ এপ্রিল থেকে যে নয়া এইচ-ওয়ান বি ভিসা চালু হওয়ার কথা ছিল তা পিছিয়ে দেওয়ার কথা ঘোষণা করল মার্কিন সংস্থা। তার পরিবর্তে ১ অক্টোবর থেকে সেই এইচ-ওয়ান বি ভিসা চালুর পরিকল্পনা রয়েছে ট্রাম্প প্রশাসনের।

এর ফলে যে মার্কিন সংস্থাগুলিতে এইচ-ওয়ান বি ভিসা নেওয়া প্রচুর কর্মী রয়েছে, তারা এই সময়ে গুছিয়ে নেওয়ার সময় পাবে। তবে শুক্রবারই আউট সোর্সিং বন্ধ করতে ফের বিল পেশ হয়েছে মার্কিন কংগ্রেসে। যে সব মার্কিন সংস্থা বিদেশি কর্মীদের উপর নির্ভরশীল, সেই সংস্থাগুলির আউটসোর্সিং কীভাবে বন্ধ করা যায় তা রয়েছে এই বিলে।

‘ইউএস কল সেন্টার অ্যান্ড কনজিউমার প্রোটেকশন অ্যাক্ট’ নামে এই বিলে বলা হয়েছে— যে সব মার্কিন সংস্থা নিজেদের অধিকাংশ কাজ অন্যান্য দেশে অবস্থিত কল সেন্টার বা অফিস থেকে করিয়ে নেয়, সেই সব সংস্থাকে চিহ্নিত করা হবে। ‘খারাপ’ তালিকায় সেই সব সংস্থার নাম ঢুকিয়ে দেওয়া হবে। এই তালিকায় যে সব সংস্থার নাম থাকবে, তারা মার্কিন সরকারের দেওয়া সুযোগ-সুবিধা, আর্থিক সাহায্য এবং ঋণ পাবে না। এই বিলটি পাশ হলে আউটসোর্সিং নির্ভর মার্কিন সংস্থাগুলি সরকারের দেওয়া সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত হবে। সেই পরিস্থিতি এড়ানোর জন্য সংস্থাগুলি আউটসোর্সিং বন্ধ করে দিলে  বেশ কয়েকটি দেশে বহু মানুষ কাজ হারাবেন।

এদিকে রাশিয়াকে কেন্দ্র করে একের পর এক মার্কিন প্রশাসনিক কর্তা বিপদে পড়ার পর মস্কোর সঙ্গে দূরত্ব বাড়াতে চাইছেন ট্রাম্প। জানিয়ে দিয়েছেন , জঙ্গি দমন কিংবা আইএস মোকাবিলায় কোনওভাবেই রাশিয়ার সঙ্গে জোট গঠন করবে না আমেরিকা। উল্লেখ্য, পূর্বসূরি  ওবামার আমলে আমেরিকার সঙ্গে রাশিয়ার যে তিক্ত সম্পর্ক চলছিল, সেখান থেকে সরে আসবেন বলে কথা দিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। নির্বাচনী প্রচারের সময় জোর দিয়ে বলেছিলেন, তিনি ক্ষমতায় এলে রাশিয়ার সঙ্গে আমেরিকার বৈরী সম্পর্ক থাকবে না। বরং দুই দেশের সম্পর্ক যেকোনও সময়ের চেয়ে অনেক বেশি বন্ধুত্বপূর্ণ হবে। কিন্তু ট্রাম্প গদিতে বসার মাসখানেক পার হতেই হাওয়া ঘুরতে শুরু করেছে।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

19 − 4 =