পেট্রলবোমা হত্যা মামলায় খালেদা জিয়াকে হাইকোর্টের দেওয়া জামিন স্থগিত

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থানায় করা হত্যা মামলায় খালেদা জিয়াকে হাইকোর্টের দেওয়া জামিন স্থগিতই রেখেছেন আপিল বিভাগ। গতকাল সোমবার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে আপিল বিভাগ এ আদেশ দেন, পাশাপাশি এ মামলায় জামিন বিষয়ে হাইকোর্টের জারি করা রুল চার সপ্তাহের মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ দেন।

গতকালের এ আদেশের পর খালেদা জিয়ার আইনজীবী অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন সাংবাদিকদের বলেছেন, আইনি প্রক্রিয়ায় খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা সম্ভব হবে না।

২০১৫ সালে ২০ দলীয় জোটের অবরোধ চলাকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে আইকন পরিবহনের বাসে পেট্রলবোমায় আটজন মারা গেলে হত্যা মামলা দায়ের হয়। এ মামলায় গত ২৮ মে খালেদা জিয়াকে হাইকোর্ট জামিন দিলে এর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ আবেদন করে। আবেদনের ওপর শুনানি হয় ২৪ জুন এবং গতকাল রাষ্ট্রপক্ষের আবেদন নিষ্পত্তি করে আদালত আদেশ দেন।

গত ২৯ মে খালেদা জিয়ার জামিন স্থগিত করেন আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি। এ স্থগিতাদেশ বহাল রেখে ৩১ মে আদেশ দেন প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে আপিল বিভাগ। গতকাল দেওয়া আদেশে এই স্থগিতাদেশই বহাল রাখা হয়েছে। গতকাল আদেশের সময় খালেদা জিয়ার পক্ষে আইনজীবী ছিলেন ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, এ জে মোহাম্মদ আলী, ব্যারিস্টার এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকন, ব্যারিস্টার কায়সার কামাল, মীর হেলালউদ্দিন, এ কে এম এহসানুর রহমান প্রমুখ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

আদেশের পর খন্দকার মাহবুব হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমার মনে হয় সরকার বেগম খালেদা জিয়াকে জেলখানায় রেখে তিলে তিলে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে। আইনি প্রক্রিয়ায় আমরা আদালতের কাছ থেকে কোনো রকম ন্যায়বিচার পাব—এ বিশ্বাস দিন দিন ক্ষীণ হয়ে যাচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘কুমিল্লায় একই ঘটনায় দুটি মামলা হয়েছিল। হাইকোর্ট বিভাগ আমাদের জামিন দিয়েছিল। সে জামিনাদেশের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ আপিল করে। তার পরিপ্রেক্ষিতে গত সপ্তাহে একটি মামলার গ্রহণযোগ্যতার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে বলেন হাইকোর্ট এবং জামিন থাকবে বলেও রায় দেন আদালত। কিন্তু আজকে আশ্চর্যজনকভাবে একই ঘটনায় আরেকটি মামলায় জামিন স্থগিত করে আদেশ দিয়েছেন।’

কাল বিক্ষোভ মিছিল : খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিএনপি সমর্থক আইনজীবীরা কাল বুধবার সারা দেশে কালো পতাকা মিছিল ও বিক্ষোভ কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন। জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের ব্যানারে গতকাল দুপুরে অনুষ্ঠিত এক বিক্ষোভ কর্মসূচি থেকে এ কর্মসূচি আসে। ঘোষণা করেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন। সংগঠনের সুপ্রিম কোর্ট শাখার সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন, অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরী, সানাউল্লা মিয়া, রফিকুল ইসলাম তালুকদার রাজা প্রমুখ আইনজীবী বক্তব্য দেন।

নড়াইলে শুনানি শেষ : নড়াইল প্রতিনিধি জানান, শহীদের সংখ্যা ও বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে বিতর্কিত বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে নড়াইলের আদালতে বিএনপি চেয়ারপারসনের নামে দায়েরকৃত মানহানি মামলায় জামিন আবেদনের শুনানি গতকাল শেষ হয়েছে। আদেশ দানের তারিখ ধার্য হয়েছে ১৭ জুলাই। ২০১৫ সালে নড়াগাতি থানার চাপাইল গ্রামের রায়হান ফারুকী ইমাম মামলাটি করেন।

অরফানেজ মামলায় শুনানি আজ –  জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় নিম্ন আদালতের সাজার বিরুদ্ধে খালাস চেয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, সাবেক সংসদ সদস্য কাজী সালিমুল হক কামাল ও শরফুদ্দিন আহমেদের করা পৃথক তিনটি আপিল এবং খালেদা জিয়ার সাজা বাড়াতে দুদকের করা আপিলের ওপর আজ মঙ্গলবার হাইকোর্টে শুনানি হবে।

বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহীম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চে এই শুনানি হবে। এর আগে ২৭ জুন দুদকের আবেদনে হাইকোর্ট

খালেদা জিয়ার আপিলের ওপর এবং রবিবার অন্য তিনটি আপিলের ওপর শুনানির জন্য ৩ জুলাই দিন ধার্য করেন।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

20 − nine =