প্যারিস বিমানবন্দরে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলি:নিহত ১

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

প্যারিস : শনিবার প্যারিসের ওরলি বিমানবন্দরে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে নিহত হয় ১ জন। নিহত ব্যক্তি বড় ধরনের নাশকতা চালানোর পরিকল্পনা করেছিল কি না, তা খতিয়ে দেখতে শুরু হয়েছে তদন্ত ।পাশাপাশি কোনও জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে তার যোগ ছিল কি না, তাও খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারীরা ।অভ্যন্তরীণ মন্ত্রকের মুখপাত্র পিয়ের-হেনরি ব্র্যান্ডেট বলেন, এক সেনার কাছ থেকে আগ্নেয়াস্ত্র ছিনিয়ে নিয়ে এক ব্যক্তি বিমানবন্দরের একটি দোকানে লুকিয়ে পড়ে। এর পরই নিরাপত্তা বাহিনী গুলি করে ওই ব্যক্তিকে। তবে এই ঘটনায় আর কেউ হতাহত হয়নি। বিমানবন্দরে আসার আগে এই ব্যক্তি সকাল সাতটা নাগাদ গাড়ি থেকে পুলিশ অফিসারকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। সেই সময় পুলিশ রাস্তায় গাড়ি থামিয়ে রুটিন তল্লাশির কাজ চালাচ্ছিল।

২০১৫ সালের নভেম্বরে প্যারিস হামলার পর থেকে এখনও চলছে জরুরি অবস্থা । একই সঙ্গে আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন উপলক্ষে ফ্রান্সে জারি রয়েছে বাড়তি সতর্কতা।  একই সঙ্গে  এক সেনার কাছ থেকে আগ্নেয়াস্ত্র ছিনিয়ে নেওয়ায় নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে নিহত হলো ১ জন।

পুলিশ জানায় নিহত ব্যক্তি বিমানবন্দরে আসবার পথে প্যারিসের উত্তরে একটি জায়গায় তার গাড়ি থেকে পুলিশের এক অফিসারকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় ।  নিজেকে বাঁচাতে গিয়ে ওই অফিসার মাথায় সামান্য আঘাত পেয়েছেন।

 স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে আটটা নাগাদ প্যারিসের এই দ্বিতীয় বৃহত্তম বিমানবন্দরে গুলি চলে। যার জেরে বন্ধ করে দেওয়া হয় বিমানবন্দরের দু’টি টার্মিনালই । ফাঁকা করে দেওয়া হয় বিমানবন্দর । বাতিল করে দেওয়া হয় সব ফ্লাইট ।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

eight + 20 =