প্রাপ্তবয়স্ক পুরুষ ও নারী লিভ-ইন করতেই পারেন-বিয়ের বয়স না হলেও:যুগান্তকারী রায় দিলো ভারত সুপ্রীম কোর্ট

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

সম্মতি থাকলে প্রাপ্তবয়স্ক পুরুষ ও নারী লিভ-ইন করতেই পারেন ;পুরুষের বয়স ২১ বছরের কম হলেও – এই যুগান্তকারী রায় ঘোষণা করলো ভারতের সুপ্রীম কোর্ট ! প্রেম কোনো বয়স মানে না। বিভিন্ন দেশের মতো ভারতে ও বিয়ের বয়স আইন বেঁধে দিয়েছে। ছেলেদের ক্ষেত্রে ২১ এবং মেয়েদের ক্ষেত্রে ১৮। সেই আইন ঠিক রেখেই এবার এ যুগান্তকারী রায় দিলেন বিচারপতি এ কে সিক্রি ও বিচারপতি অশোক ভূষণকে নিয়ে গড়া ভারতের সুপ্রিম কোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ ।
২০১৭ সালে ভারতের কেরালার ২০ বছর বয়সী তরুণী তুষারার সঙ্গে বিয়ে নন্দকুমার নামক এক তরুণের। বিয়ের সময় নন্দকুমারের বয়স ছিল ২১ বছরের কম। বিয়ের পর তুষারার বাবা তার মেয়েকে অপহরণ করা হয়েছে- মর্মে একটি মামলা দায়ের করেন । মামলায় গত বছর কেরালা হাইকোর্ট তুষারা -নন্দকুমারের বিয়েকে ‘অবৈধ’ ঘোষণা করে তুষারাকে তার বাবার বাড়িতে ফিরে যাবার নির্দেশ দেন। এরপর কেরল হাইকোর্টের সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে আবেদন করা হয়েছিল সুপ্রিম কোর্টে।
সেই আবেদনের প্রেক্ষিতে বিচারপতি এ কে সিক্রি ও বিচারপতি অশোক ভূষণকে নিয়ে গড়া সুপ্রিম কোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ শুক্রবার ঘোষণা করেছে, ‘বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হওয়ার বয়স না হলেও যারা প্রাপ্তবয়স্ক, তারা সেই সম্পর্কের বাইরেও লিভ-ইন করতে পারেন। তাদের সেই আইনি অধিকার রয়েছে। আইনসভাও লিভ-ইন সম্পর্ককে অনুমোদন করেছে। সেই সম্পর্ককেও পারিবারিক হিংসা আইনের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।’
একই সঙ্গে দেশটির সুপ্রিম কোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ বলেছে, তুষারাকে তার সঙ্গীকে ছেড়ে বাবার বাড়ি ফিরে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়াটা কেরালা হাইকোর্টের উচিত হয়নি। ডিভিশন বেঞ্চ বলেছে, ‘দাম্পত্যে সঙ্গী নির্বাচনে আদালত জাতির পিতার ভূমিকা নিতে পারে না।’তুষারা কার সঙ্গে থাকবেন, সেটা তাকেই ঠিক করতে বলেছেন শীর্ষ আদালত।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

8 + twelve =