বন্দুকযুদ্ধে রাজধানী ঢাকাসহ নিহত ৬ – মাদকবিরোধী অভিযান

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

রাজধানী ঢাকাসহ যশোর,কুষ্টিয়া, নাটোর ও লক্ষ্মীপুরে বন্দুকযুদ্ধে ছয়জন নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে ও বুধবার ভোরে এসব বন্দুকযুদ্ধ হয়। নিহতদের মধ্যে মাদক ব্যবসায়ী, ডাকাত দলে সদস্য ও বিভিন্ন মামলার আসামি রয়েছেন। এ সময় বিদেশি অস্ত্রসহ গুলি, ইয়াবা, মদ ও বিভিন্ন মাদক দ্রব্য উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

ঢাকার কেরানীগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নুরা ওরফে নুরু (৪৫) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। বুধবার ভোরে কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ডায়মন্ড মেলামাইন কারখানার সামনে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশের দাবি, নিহত নুরু একজন মাদক ব্যবসায়ী।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানা সূত্রে জানা গেছে, ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

যশোরের মণিরামপুরে দু’দল ডাকাতের বন্দুকযুদ্ধে একজন নিহত হয়েছেন বলে দাবি করেছে পুলিশ। ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র, গুলি ও বোমা উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার ভোরে যশোর-রাজগঞ্জ সড়কের কোদলাপাড়া জামতলা এলাকায় এই বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। তবে নিহত যুবকের (৩২) নাম পরিচয় এখনও জানা যায়নি।

যশোরের মণিরামপুর থানার ওসি মোকাররম হোসেন জানান, খেদাপাড়া ফাঁড়ি পুলিশ বুধবার ভোরে যশোর-রাজগঞ্জ সড়কের কোদলাপাড়া জামতলা এলাকায় রাস্তার পাশ থেকে গুলিবিদ্ধ একটি মরদেহ উদ্ধার করেছে। ধারণা করা হচ্ছে দু’দল ডাকাতের বন্দুকযুদ্ধে ওই যুবক নিহত হয়েছেন। তবে তার নাম পরিচয় এখনও জানা যায়নি। পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

কুষ্টিয়ার মিরপুরে র্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে মোন্না (৩৫) ও রাসেল আহম্মেদ (৩০) নামে দু’জন নিহত হয়েছেন। র্যাবের দাবি এ ঘটনায় তাদের দুই সদস্য আহত হয়েছেন।

ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি নাইম এমএম পিস্তল, ১টি দেশি ওয়ান শুটার গান, ২টি কার্তুজ, ১২ রাউন্ড গুলি ও ৪০ লিটার চোলাই মদ, ১৫শ পিস ইয়াবা ও ২৩০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়েছে।

নিহত ফুটু ওরফে মোন্না রাজারহাট মোড় এলাকার মৃত আহম্মদ আলীর ছেলে ও রাসেল আহম্মেদ একই এলাকার রবিউল ইসলামের ছেলে। সম্পর্কে তারা মামা-ভাগ্নে বলে জানা গেছে।

র্যাব-১২, সিপিসি-১, কুষ্টিয়া ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার মোহাইমিনুল জানান, মাদক দ্রব্য ক্রয় বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে একদল মাদক ব্যবসায়ী মিরপুর উপজেলার কূর্শা ইউনিয়নের আনন্দ বাজার বালুচর সংলগ্ন জোয়াদ্দারের ইটভাটার কাছে অবস্থান করছে এমন গোপন সংবাদ পেয়ে কুষ্টিয়া র্যাব ক্যাম্পের একটি আভিযানিক দল ঘটনাস্থলে অভিযান চালায়। র্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক ব্যবসায়ীরা র্যাবকে লক্ষ্য কর গুলি ছোড়ে।

 

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

19 − ten =