বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে বাসে আগুন দিয়ে আটজনকে হত্যার ঘটনায় করা মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার দুপুরে কুমিল্লার অতিরিক্ত মুখ্য বিচারিক হাকিম জয়নব বেগম এ আদেশ দেন। কুমিল্লা জেলা দায়রা আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) মোস্তাফিজুর রহমান লিটন  বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

২০১৫ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি ভোরে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের মিয়ার বাজার এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ইউনিক পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসে পেট্রল বোমা হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা। এতে অগ্নিদগ্ধ হয়ে আটজন মারা যান। আহত হন আরো অন্তত ২০ যাত্রী।

এ ঘটনায় চৌদ্দগ্রামের সাবেক সংসদ সদস্য ও জামায়াত নেতা ডা. সৈয়দ আবদুল্লাহ মোহাম্মদ তাহেরকে প্রধান আসামি করে ৫৬ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরো ২০ জনের বিরুদ্ধে চৌদ্দগ্রাম থানায় মামলা করে পুলিশ।

বিস্ফোরক ও হত্যা আইনে করা এ মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ দলটির শীর্ষস্থানীয় ছয় নেতাকে হুকুমের আসামি করা হয়।মামলার ৭৮ আসামির মধ্যে তিনজন মারা গেছেন। আর পাঁচজনকে বাদ দিয়ে অভিযোগপত্র দেওয়া হয়।

খালেদা জিয়াসহ আরো ৬৯ জনের বিরুদ্ধে কুমিল্লা আদালতে তদন্ত কর্মকর্তা ডিবির পরিদর্শক ফিরোজ আহমেদ অভিযোগপত্র দেন। আজ মঙ্গলবার আদালত অভিযোগপত্র গ্রহণ করে খালেদা জিয়াসহ বাকি আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। আদালতে ২০ জন আসামি উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে গত বছরের ৯ অক্টোবর একই ঘটনায় বিস্ফোরক আইনে করা মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে কুমিল্লার একটি বিচারিক আদালত। গত বছরের ৬ মার্চ এ মামলায় খালেদা জিয়াসহ ৭৮ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা চৌদ্দগ্রাম থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মোহাম্মদ ইব্রাহীম।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

10 + 8 =