বিধ্বংসী ম্যাককালাম: বিদায়ী টেস্টে দ্রুততম সেঞ্চুরির রেকর্ড

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

নিউজিল্যান্ডের খ্রাইস্টচার্চে গতকাল শনিবার অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে নিজের বিদায়ী টেস্টে বিধ্বংসী রূপ নিয়ে দ্রুততম সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়েছেন স্বাগতিক দলের অধিনায়ক ব্রেন্ডন ম্যাককালাম।

৫৪ বলে শতরানে পৌঁছে তিনি ভিভ রিচার্ডস ও মিসবাহ উল হকের রেকর্ড অতিক্রম করে যান। ১৯৮৬ সালে অ্যান্টিগায় ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৫৬ বলে সেঞ্চুরি করেছিলেন রিচার্ডস। ২০১৪ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে আবু ধাবিতে সেই রেকর্ডে ভাগ বসিয়েছিলেন মিসবাহ।

এদিনের খেলায় মধ্যাহ্নবিরতির আগে নিজের ১০১তম ছক্কাটি মেরে টেস্টে সবচেয়ে বেশি ছক্কার রেকর্ডটিও ম্যাককালাম নিজের করে নেন। এর আগে গত ডিসেম্বরে ডানেডিনে শততম ছক্কা মেরে এডাম গিলক্রিস্টের পাশে বসেছিলেন। উল্লেখ্য, ক্রাইস্টচার্চে চলমান এই টেস্টের পরেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানাবেন ম্যাককালাম।

নিজের এই শততম ও বিদায়ী টেস্টে ১২তম সেঞ্চুরি করার পরে ম্যাককালাম শেষপর্যন্ত থামেন ৭৯ বলে ১৪৫ রান করে। তিনি চার মেরেছেন ২১টি আর ছক্কা ছয়টি। নিউজিল্যান্ড সব কটি উইকেট হারিয়ে তোলে ৩৭০ রান।

ঘরের মাঠ হ্যাগলি ওভালে যখন মাঠে নামেন কিউই অধিনায়ক, ৩২ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে তাঁর দল ধুঁকছে। ম্যাককালাম মাঠে নেমেই শুরু করেন এক অবিশ্বাস্য প্রতিআক্রমণ।

দ্বিতীয় বলেই বাউন্ডারি মেরে শুরু। খানিক পরই মিচেল মার্শের এক ওভারে মারলেন দুটি বাউন্ডারি ও দুটি ওভার-বাউন্ডারি। লাঞ্চের পর সেঞ্চুরি ছুঁলেন ৩৪ বলে। এর পর আরো বিধ্বংসী হয়ে উটে মাত্র ২০ বলেই পরের পঞ্চাশ পূর্ণ করেন ম্যাককালাম। নিজের ৮২ রান থেকে জস হেইজেলউডের বলে একটি ছয় ও টানা তিনটি চার মেরে তিনি তিন অঙ্কের সংগ্রহে পৌঁছে যান।

সকালে ব্যাট হাতে কিউই অধিনায়ক মাঠে নামার সময় পুরো গ্যালারি দাঁড়িয়ে তাঁকে অভিবাদন জানিয়েছিল। মাঠে গার্ড অব অনার দিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া দল। ২ ঘন্টার তাণ্ডবলীলা চালিয়ে তিনি যখন সাজঘরে ফিরলেন, তখনও দাঁড়িয়ে পুরো গ্যালারি। করতালিতে প্রকম্পিত চারপাশ। ব্র্যান্ডন ম্যাককালামের নাম ইতিহাসে লেখা হয়ে গেছে লাল অক্ষরে।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

5 × 1 =