বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলে দিয়েছে জঙ্গিদের ল্যাপটপ বোমা

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

বিমানবন্দরের স্ক্যানারের নজর এড়াতে নতুন কৌশল নিচ্ছে আইএস এবং আল কায়েদা জঙ্গিরা। তারা এমন ছোট বোমা বানাচ্ছে, যা ল্যাপটপে বা ওই জাতীয় কোনও ইলেকট্রনিক যন্ত্রে লুকিয়ে রাখা সম্ভব। আর তা বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে ধোঁকা দিতে সক্ষম। আর এই চাঞ্চল্যকর তথ্যই রাতের ঘুম কেড়ে নিয়েছে আমেরিকা এবং ব্রিটেনের। তাই, মুসলিম অধ্যুষিত আটটি দেশের যাত্রীদের ক্ষেত্রে ল্যাপটপ বা ইলেকট্রনিক যন্ত্র বহনের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। পশ্চিম এশিয়া এবং আফ্রিকার আটটি দেশের ১০টি বিমানবন্দর থেকে যাত্রী নেওয়ার ক্ষেত্রে তাই কিছু বিধিনিষেধ আরোপ করেছে আমেরিকা এবং ব্রিটেন। যেমন ২১ মার্চ থেকেই জর্ডন, কাতার, কুয়েত, মরক্কো, সংযুক্ত আরব আমিরশাহি, সৌদি আরব, মিশর এবং তুরস্ক থেকে আমেরিকাগামী সব বিমানের কেবিনে ইলেকট্রনিক যন্ত্র বহনের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। নিরাপত্তা সংক্রান্ত পুরো বিষয়টি পর্যালোচনা করে দেখা হচ্ছে।

তবে, নিরাপত্তার স্বার্থে এখনই সরকারিভাবে কিছু প্রকাশ্যে জানানো হচ্ছে না। গোয়েন্দা সূত্রে খবর, এই নতুন ধরনের বোমা নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালাচ্ছে আইএস এবং আল কায়েদা জঙ্গিরা। এরপরই সংশ্লিষ্ট সব পক্ষকে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে। শুধু বোমাই নয়, ইলেকট্রনিক যন্ত্রের মাধ্যমে বিস্ফোরক পাচারের বিষয়টির উপরও কড়া নজর রাখা হচ্ছে।

হোমল্যান্ড সিকিউরিটি বিষয়ক মন্ত্রণালয়কে  উদ্ধৃত করে সিবিএস নিউজ এই খবর দিয়েছে।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

five × 4 =