বড় ফাটল আন্টার্কটিকায়

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

আন্টার্কটিকায় হিমবাহে বড়সড় ফাটলের দেখা মিললো। ফাটলের জন্য দ্রুত হারে গলে চলেছে সেখানকার বরফ। ব্রিটেনের সোয়ানসি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা সম্প্রতি এমনটাই দাবি করলেন। তাঁরা জানাচ্ছেন, আন্টার্কটিকার সবচেয়ে বড় ও পুরু বরফ চাদরের ফাটলের গভীরতা বাড়ছে। পুরু ঐ বরফের চাদরটির নাম লারসেন সি আইস শেলফ। ওই চাদরে ১০০ মাইল দীর্ঘ এলাকাজুড়ে বড় ফাটল দেখা দিয়েছে। গত ডিসেম্বরে ফাটল বেড়েছিলো ১১ মাইল।

জানুয়ারির প্রথম দুসপ্তাহে ফাটল বাড়লো আরো ৬ মাইল। সব মিলিয়ে এক মাসেরও কম সময়ে আন্টার্কটিকার সবচেয়ে বড় আর পুরু বরফ চাদরে ফাটল বেড়ে হলো ১৭ মাইল। বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, ফাটল ধরা মানে ওই পথে ঢুকবে সূর্যের আলো। ঢুকবে অক্সিজেন আর কার্বন ডাই অক্সাইড। ফলে জমাট বরফ আরো গলবে তাড়াতাড়ি।

আন্টার্কটিকার জমাটবাঁধা বরফ এলাকায় থইথই করবে জল। আর তা আন্টার্কটিকার ভূগোল পরিবর্তন করে দেবে। মহাসাগরের জলস্তর কমপক্ষে ৪ ইঞ্চি আরো বাড়বে। মহাসাগরের সংলগ্ন বহু এলাকা, বহু দেশ চলে যাবে জলের তলায়। মার্কিন গবেষণা সংস্থা নাসার বিভিন্ন উপগ্রহের ছবি থেকে এটা প্রমাণ করেছেন বিজ্ঞানীরা।

সোয়ানসি বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক জানাচ্ছেন, লারসেন সি আইস শেলফ গলতে থাকলেও এখনই সেই জল সাগরে মিশতে পারছে না। এর কারণ লারসেন সি আইস সেলফের আগে রয়েছে ১২মাইল লম্বা একটা শক্তপোক্ত বরফ প্লেট। কিন্তু কোন কারণে ওই প্লেটে ফাটল ধরলে সব শেষ। আটকানোর আর কোন রাস্তা থাকবে না।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

two × 3 =