যুক্তিবাদ, বিজ্ঞান চর্চা এগিয়ে নিয়ে যেতে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ২০শে আগস্ট পদযাত্রা

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

২০শে আগস্ট যুক্তিবাদী ব্যক্তিত্ব ডাঃ নরেন্দ্র দাভোলকারকে হত্যা করা হয়েছিল, তাই এই দিনটিতেই জাতীয় বিজ্ঞান মনস্কতা দিবস পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংগঠনগুলি। প্রদীপ মহাপাত্র দিনটি পালনের প্রেক্ষিত ব্যাখ্যা করে বলেন, শুধু নরেন্দ্র দাভোলকারই নন, গোবিন্দ পানসারে, এম এম কালবুর্গি, গৌরী লঙ্কেশসহ অনেকেই উদগ্র ধর্মান্ধতা ও মৌলবাদী আক্রমণের শিকার হয়েছেন।

মানুষের যুক্তিবোধকে দুর্বল করে দেওয়ার চেষ্টা চলছে। এর বিরুদ্ধেই আমাদের সংগ্রাম। আনন্দদেব মুখার্জি বলেন, কেন্দ্র ও রাজ্য কোনও প্রশাসনই চায় না সাধারণ মানুষের মধ্যে বিজ্ঞান মনস্কতা এগোক। বরং যুক্তিবাদকে শেষ করতে উদগ্রীব তারা। আমাদের প্রতিবাদ সেই কারণেই। সিদ্ধার্থ দত্ত বলেন, আমাদের দেশ যদি বিজ্ঞান চর্চায় পিছিয়ে যায়, আমাদের দেশের মানুষের মধ্যে যদি স্বনির্ভরতা কমে যায় তাহলে লাভ বিদেশি শক্তির। তারা কায়েম হতে পারবে আমাদের ওপর। ঠিক এই চেষ্টাই চলছে দিন রাত। উপস্থিত বক্তারা বলেন, আমাদের প্রথম ও প্রধান দাবি অন্ধ বিশ্বাস ও কুসংস্কার বিরোধী আইন প্রণয়ন করতে হবে। শিক্ষায় জি ডি পি-র ৬ শতাংশ এবং গবেষণা খাতে জি ডি পি-র ৩ শতাংশ বরাদ্দ করতে হবে। মানুষের মধ্যে বিজ্ঞান মনস্ক ও যুক্তিবাদী চর্চা বাড়াতে হবে। এই দাবি নিয়ে মহারাষ্ট্র থেকে দিল্লি, উত্তর প্রদেশ থেকে তামিলনাড়ু সর্বত্র প্রচার কর্মসূচি পালনের আহ্বান জানানো হয়েছে।

যুক্তিবাদ ও বিজ্ঞান চর্চাকে আরও এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যে ভারতের জুড়ে গড়ে উঠছে মেলবন্ধন। পশ্চিমবঙ্গের ১৪টি বিজ্ঞান ও যুক্তিবাদী সংগঠনসহ সারা দেশে ৩৮টি সংগঠনের উদ্যোগে সোমবার ২০শে আগস্ট পালিত হবে জাতীয় বিজ্ঞান মনস্কতা দিবস। বিজ্ঞান ও যুক্তিবোধের ওপর নানা ধরনের আক্রমণের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে পদযাত্রা, আলাপ আলোচনা, সভা সমিতি এবং স্কুলে স্কুলে ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে আরও বেশি করে বিজ্ঞান চেতনা সঞ্চারের মধ্যে দিয়ে পালিত হবে দিনটি।

সমাজে অন্ধ কুসংস্কার ছড়িয়ে দিয়ে দেশের বিজ্ঞানের অগ্রগতিকে থামিয়ে দেওয়ার অপচেষ্টার প্রতিবাদ জানাতে এবার দেশজুড়ে এগিয়ে এসেছেন যে বিজ্ঞান মনস্ক ও যুক্তিবাদী মানুষ, তাঁরাই প্রতিরোধের বার্তা দিলেন তাঁরা। গোটা দেশের বিজ্ঞান চেতনা সম্পন্ন মানুষ একসঙ্গে নামবেন এই কাজে। পশ্চিমবঙ্গে ধর্মতলা ওয়াই চ্যানেল থেকে পদযাত্রা হবে রাণুচ্ছায়া মঞ্চ পর্যন্ত। বেলা ৩টায় শুরু হবে এই পদযাত্রা। এরপর বিকাল চারটায় রাণুচ্ছায়া মঞ্চে সভা ও আলোচনায় শামিল হবেন বিজ্ঞান জগতের শিক্ষক শিক্ষিকা ও যুক্তিবাদীরা।

শুক্রবার এক সাংবাদিক বৈঠকে এই কর্মসূচির কথা জানায় পশ্চিমবঙ্গ বিজ্ঞান মঞ্চ। দিনটিকে পালনের আহ্বান জানিয়েছে সারা ভারত জনবিজ্ঞান নেটওয়ার্ক ও মহারাষ্ট্র অন্ধশ্রদ্ধা নির্মূল সমিতি। এছাড়াও এই সংগঠনগুলির মধ্যে রয়েছে বঙ্গীয় সাক্ষরতা প্রসার সমিতি, পিপলস রিলিফ কমিটি, ফোরাম অব সায়েন্টিসটস ইঞ্জিনিয়ার্স অ্যান্ড টেকনোলজিস্ট, বঙ্গীয় বিজ্ঞান পরিষদ, সায়েন্স কমিউনিকেটরস ফোরাম, সায়েন্স অ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গল, গণদর্পণ, জয়েন্ট অ্যাকশন কমিটি ফর অটোনমাস রিসার্চ ইন্সটিটিউট, অ্যাসোসিয়েশন অব স্টেট ইঞ্জিনিয়ার্স অ্যান্ড টেকনিক্যাল অফিসার্স, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় গবেষক সমিতি, পিপলস অ্যাসোসিয়েশন অব সায়েন্স অ্যান্ড এনভায়রনমেন্ট, গোবরডাঙা রেনেসাঁস ইন্সটিটিউট প্রভৃতি।

এদিন সাংবাদিক বৈঠকে ছিলেন পশ্চিমবঙ্গ বিজ্ঞান মঞ্চের সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ মহাপাত্র ছাড়াও অধ্যাপক আনন্দদেব মুখার্জি, সিদ্ধার্থ দত্ত, অনুপ সরকার, অরুণাভ মিশ্র, তপন সাহা প্রমুখ।

 

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

four − 1 =