রংপুরে আইনজীবী রথীশ হত্যা মামলার আসামি মিলন মোহন্ত’ র কারাগারে মৃত্যু

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

রংপুরের বিশেষ জজ আদালতের পিপি আইনজীবী রথীশ চন্দ্র ভৌমিক বাবুসোনা হত্যা মামলার আসামি মিলন মোহন্ত কারাহেফাজতে মারা গেছেন। আজ শুক্রবার রাত ৯টার দিকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রিজন সেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। মিলন নিহত বাবু সোনার ব্যক্তিগত সহকারী ছিলেন। গত ৫ এপ্রিল তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছিল।

রংপুর কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার আমজাদ হোসেন মিলন মোহন্তের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘কোতোয়ালি থানা পুলিশের কাছ থেকে গ্রহণ করার পরপরই তাকে আমরা চিকিৎসার জন্য রমেক হাসপাতালে পাঠিয়ে দেই। তার শরীরে অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন ছিল।’ তিনি জানান, লাশ ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। মিলন মোহন্তের বাড়ি নগরীর তাজ হাট এলাকায়।’

জানা গেছে, গত ২৯ মার্চ বৃহস্পতিবার রাতে বাবুসোনাকে হত্যা করা হয়। এরপর তার লাশ তাজহাট মোল্লাপাড়ায় একটি নির্মাণাধীন বাড়ির ঘরে পুঁতে রাখা হয়। ৫ এপ্রিল রাতে বাবু সোনার স্ত্রী স্নিগ্ধা ভৌমিককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য র‌্যাব আটক করে। তিনি র‌্যাব হেফাজতে  হত্যাকাণ্ডের স্বীকারোক্তি দেন বলে র‌্যাব  মহাপরিচালক এক সংবাদ সম্মেলন করে জানান।

তিনি আরো জানান  স্বীকারোক্তির সূত্র ধরে  রাতে মোল্লাপাড়ার একটি বাড়ির মেঝে খুঁড়ে  এডভোকেট  বাবুসোনার গলিত লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় পুলিশ বাবুসোনার স্ত্রী স্নিগ্ধা সরকার ওরফে দিপা ভৌমিক,  কামরুল ইসলাম, মিলন মোহন্ত, ছাত্র মোল্লাপাড়া এলাকার সবুজ ইসলাম ও রোকনুজ্জামানকে গ্রেফতার করে। গত ৫ এপ্রিল কামরুল বাদে অপর চার আসামিকে রংপুরের চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক আরিফা ইয়াসমিন মুক্তার এজলাশে হাজির করা হয়। আদালতে মিলন মোহন্তসহ আসামিরা স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিলে তাদের রংপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

thirteen − 8 =