রাজধানীতে তিনটি বাসে আগুন :জনদুর্ভোগ চরমে

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

মঙ্গলবার বিকেলে উত্তরা জসীমউদ্‌দীন মোড়-সংলগ্ন র‌্যাব-১-এর কার্যালয়ের সামনে এনা ও বুশরা পরিবহনের দুটি বাসে আগুন দেওয়া হয়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। মঙ্গলবার সারা ঢাকা শহরেই সকাল থেকে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। ভাংচুর ও অবরোধে অচল হয়ে পড়ে রাজধানী। রাজপথে বাস না থাকায় চরম দুর্ভোগে পড়তে হয় সাধারণ মানুষকে।
ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণকক্ষের কর্মকর্তা মো. রাসেল শিকদার জানান, খবর পেয়ে  উত্তরা ঘটনাস্থলে তাদের দুটি ইউনিট পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।
এতে কোনও হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি বলেও জানান ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তা। এর আগে দুপুরে ধানমন্ডির সিটি কলেজের সামনে আরেকটি যাত্রীবাহী বাসে আগুন দেয়া হয়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, বিক্ষোভ থেকে এক পর্যায়ে হিমাচল পরিবহনের একটি বাসে আগুন ধরিয়ে দেয় শিক্ষার্থীরা। পরে ফায়ার সার্ভিস আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।
গত রোববার রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে জাবালে নূর পরিবহনের চাপায় নিহত হয় শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দুই শিক্ষার্থী আবদুল করিম ওরফে রাজীব (১৭) ও দিয়া খানম ওরফে মিম (১৬)।
দুর্ঘটনার দিনই বিক্ষোভ ও ভাংচুর হয়। এর পরদিন সোমবার শহীদ রমিজউদ্দীন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের শিক্ষার্থীরা বেরিয়ে এসে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে। এ সময় তারা কয়েকটি যানবাহনে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

fifteen − seven =