শ্যামনগরে বৃদ্ধা মা’কে বেঁধে বর্বর নির্যাতন :পুত্র ও পুত্রবধু আটক

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

মা জনম দুঃখীনি মা, গর্ভধারিণী মা; যে মা ১০ মাস ১০দিন গর্ভে সযত্মে ধারণ করে রেখেছিলেন। সেই মা যদি এমন বউয়ের পাল্লায় পড়েন? কিন্তু সন্তানের চোখ কি অন্ধ ?’ এভাবেই  সম্প্রতি স্থানীয় এক যুবক  এক বৃদ্ধাকে  নির্যাতনের ঘটনার ভিডিওসহ স্থানীয় পুলিশের দৃষ্টি আকর্ষণ করে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন।
স্ট্যাটাসে তিনি লেখেন, ’সাতক্ষীরার শ্যামনগরে বৃদ্ধা শাশুড়িকে বেঁধে নির্যাতন চালানোর ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হওয়ার পর পুলিশ ওই বৃদ্ধার ছেলে ও তার স্ত্রীকে আটক করেছে।  শুক্রবার দুপুরে উপজেলার বড়কুপট গ্রাম থেকে তাদের আটক করা হয়।
আটকরা হলেন শ্যামনগরের বড়কুপট গ্রামের মৃত তৈলক্ষ্য মণ্ডলের ছেলে প্রভাষ মণ্ডল ও প্রভাষ মণ্ডলের স্ত্রী আশা রানী।
স্থানীয়রা জানান, বড়কুপট গ্রামের মৃত তৈলক্ষ্য মণ্ডলের স্ত্রী ফুল মতি দাসীর বয়স আশি বছর প্রায়। বয়সের ভারে তিনি শয্যাশায়ী।  প্রায়ই তাকে বেঁধে নির্যাতন করেন তার ছেলের স্ত্রী আশা রানী। তাকে ঠিকমতো খাবারও দেওয়া হয় না।

এমন বর্বরতার বিষয় শ্যামনগর থানা পুলিশের নজরে এলে শুক্রবার দুপুরে ঘটনাস্থলে গিয়ে বৃদ্ধাকে  হাত বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার করে এবং পুত্র প্রভাষ ও তার স্ত্রীআশাকে আটক করে।
শ্যামনগর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শংকর জানান, ওই বৃদ্ধার ছেলে-বউমাকে ইতোমধ্যে আটক করা হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।
তিনি আরও জানান, বৃদ্ধা ফুলমতি দাসী বর্তমানে তার বাড়িতেই ভাল আছেন। তার খাবারের ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়েছে। তবে এই বৃদ্ধা কিছুটা মানসিক ভারসাম্যহীন বলে জানান ই পুলিশ কর্মকর্তা।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

5 − 1 =