সম্প্রীতির বার্তাসহ ভারতের নবদ্বীপ থেকে গৌরাঙ্গ মহাপ্রভুর পাদুকা বাংলাদেশে

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

দুই বাংলায় সম্প্রীতির বার্তা দিতে মঙ্গলবার সকালে নবদ্বীপ থেকে চৈতন্য গৌরাঙ্গ মহাপ্রভুর পাদুকা এসেছে বাংলাদেশে। চট্টগ্রামে তিনদিন ধরে তা প্রদর্শিত হয়েছে ।

মহাপ্রভুর এই পাদুকাজোড়া বিষ্ণুপ্রিয়া সেবা সমিতির মন্দিরে সংরক্ষিত ছিল।  এদিন সকালে বিশেষ পুলিসি নিরাপত্তায় পাদুকাজোড়া নবদ্বীপের মহাপ্রভুপাড়ার মন্দির থেকে দমদম বিমানবন্দরে নিয়ে যাওয়া হয়। চট্টগ্রামে শ্রীশ্রীহরিভক্তি প্রচারণী সভার উদ্যোগে যামিনীমোহন সেন হলে চলে বিশেষ পুজোপাঠ, নামসংকীর্তন। সেখানেই চৈতন্যের পাদুকা দেখতে পান পুণ্যার্থীরা।

মন্দিরের অন্যতম সেবায়েত সুদিন গোস্বামী ও বিষ্ণুপ্রিয়া সেবা সমিতির সম্পাদক জয়ন্ত গোস্বামী জানিয়েছেন, ‘‌এই প্রথম মহাপ্রভুর পাদুকা দেশের বাইরে যাচ্ছে। দু’‌দেশের মধ্যে যে সৌহার্দ্যপূর্ণ বাতাবরণ রয়েছে, তাকে সুদৃঢ় করতেই এই সফর।’‌  পাদুকা নিয়ে বাংলাদেশ গেছে তিন সদস্যের দল। এই দলে আছেন সুদিন গোস্বামী, প্রদীপ গোস্বামী ও জয়ন্ত গোস্বামী। কথিত, সন্ন্যাস গ্রহণের পর গৌরাঙ্গ মহাপ্রভু এই পাদুকা রেখে গিয়েছিলেন স্ত্রী বিষ্ণুপ্রিয়াদেবীর কাছে। তিনি তা রেখেছিলেন পরম যত্নে। পরে সেই পাদুকা বিষ্ণুপ্রিয়া সেবা সমিতির মন্দিরে সংরক্ষিত রাখা হয়। ‌

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

3 × two =