সাংবাদিককে হেনস্থা করলেন বোয়ালখালী উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউল

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে দৈনিক প্রথম আলো’র বোয়ালখালী উপজেলা প্রতিনিধি কাজী আয়েশা ফারজানাকে বোয়ালখালীতে চরম অশালীন ভাষায় মানসিক হেনস্থা করলেন বোয়ালখালী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আতাউল হক । ঘটনার প্রতিবাদে ২১ এপ্রিল শনিবার দুপুর ২টায় চট্টগ্রাম অনলাইন প্রেস ক্লাবের সামনে সংগঠনের সভাপতি অধ্যক্ষ মুকতাদের আজাদ খানের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন করেছেন সাংবাদিক সমাজ । সাংবাদিক কাজী আয়েশা ফারজানার সাথে অশোভন আচরণ করে নাজেহাল করার নিন্দা জানিয়েছেন প্রেসক্লাব বোয়ালখালীর সভাপতি অধীর বড়ুয়া ও সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম ।মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে কাজী আয়েশা ফারজানার উপর মানসিক নির্যাতনকারী ব্যক্তি প্রকাশ্যে ক্ষমা না চাইলে অনলাইন সাংবাদিকেরা আতাউল হকের বাড়ি ঘেরাও সহ কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করার হুশিয়ারী উচ্চারণ করেন।


কাজী আয়েশা ফারজানা সূর্যবার্তাকে জানান, ১৯ এপ্রিল বৃহস্পতিবার চরণদ্বীপ ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে কমিউনিটি পুলিশ ও আইন শৃঙ্খলা বিষয়ক মত বিনিময় সভার সংবাদ সংগ্রহের জন্য গিয়েছিলাম। অনুষ্ঠান শেষে ইউপি চেয়ারম্যানের অফিস কক্ষে ল্যাপটপে সংবাদ পাঠানোর কাজ করার সময় হঠাৎ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. আতাউল সেই কক্ষে ঢুকে পড়েন এবং তিনি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের চেয়ারে বসে চিৎকার করে আমাকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘এই বেটি (মেয়ে), ল্যাপটপ বন্ধ কর। তুই জানিস, আমি চেয়ারম্যানের, চেয়ারম্যান ? আমার সামনে বসে সংবাদ টাইপ করছিস ? ’  বিনা কারণে হুমকি পেয়ে হতচকিত আয়েশা ল্যাপটপ শাট ডাউন দেবার পর ল্যাপটপ বন্ধ হতে সময় নেয়ায় আতাউল আরো উত্তেজিত হয়ে অকথ্য ভাষায় আয়েশা ফারজানার প্রতি আক্রমণ করেন বলে জানান আয়েশা ফারজানা এবং প্রত্যক্ষদর্শীরা ।

বোয়ালখালী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আতাউল হক সর্বসমক্ষে এমন অশালীন এবং আক্রমণাত্মক আচরণ করায় মানসিক ভাবে ভেঙে পড়েন সাংবাদিক আয়েশা ফারজানা । ঘটনার পর আয়েশা শারীরিক ভাবে অসুস্থ হয়ে পড়লে, তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

eight + seven =