স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভায় সৌদি প্রবাসীদের সাংস্কৃতিক কেন্দ্র খোলার দাবি

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

অহিদুল ইসলাম,সৌদি আরব:তিন দশকের বেশি সময় ধরে সৌদি আরবে বাংলাদেশিদের অবস্থান থাকলেও আজ পর্যন্ত নিজেদের দূতাবাসে প্রবাসীদের জন্য সাংস্কৃতিক কেন্দ্র খোলা হয়নি। দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল রাখার চালিকাশক্তি হিসেবে সংস্কৃতি চর্চা একটি অন্যতম মাধ্যম জেনেও বিষয়টি নিয়ে দূতাবাস এখনো তেমন পদক্ষেপ নিতে ব্যার্থ হয়েছে অভিযোগ করে প্রবাসীদের কর্মোদ্দীপনা বাড়ানোর জন্য হলেও একটি সাংস্কৃতিক কেন্দ্র তৈরি করা দরকার বলে দাবি করলেন প্রবাসীরা।
01

রিয়াদে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ সৌদি আরব পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশ আয়োজিত আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস আলোচনা সভায় এই দাবি করেন তারা। এতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি আব্দুল কাইয়ূম। প্রধান অতিথি হিসেবে রাষ্ট্রদূত গোলাম মসিহ’র উপস্থিত থাকার কথা থাকলেও ছিলেন দূতাবাসের ১ম সচিব মিজানুর রহমান। প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য দেন রিয়াদ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ সেলিম ভূইয়া।

বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট সৌদি আরব কেন্দ্রিয় কমিটির সভাপতি ডাক্তার কামরুল ইসলাম বলেন, সৌদি আরবে ভারত, পাকিস্তান, ফিলিপাইন, ইন্দোনেশিয়াসহ ইউরোপ-আমেরিকার প্রত্যেকটি দেশের মিশনে প্রবাসে তাদের নাগরিকদের জন্য সাংস্কৃতিক কেন্দ্র থাকলেও বাংলাদেশ দূতাবাসে এর ব্যতিক্রম। বিষয়টি সুরাহা করার জন্য সৌদি-বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক চুক্তি জোরদার করা দরকার হলেও দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়া দরকার।

অনুষ্ঠানে অস্থায়ী শহীদ মিনার তৈরি করে ফুল দিয়ে ভাষাশহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানায় প্রবাসীরা। এ সময় দলে দলে ফুল দিয়ে শহীদ মিনার পুষ্পার্ঘে ভরে তোলেন তারা।

আলোচনা সভায় কিং সউদ বিশ্ববিদ্যালয়ের ন্যানো বিজ্ঞানী ডক্টর রেজাউল করীম রিয়াদে বাংলাদেশ দূতাবাসে অস্থায়ী শহীদ মিনার তৈরি না করে এ বছর দিবসটি পালন করার জন্য প্রশ্ন তোলেন। তিনি বলেন, পৃথিবীর প্রায় সব দেশে বাংলাদেশ মিশনগুলিতে স্থায়ী কিংবা অস্থায়ী শহীদ মিনার তৈরি করে প্রবাসীদের জন্য ভাষাশহীদদের স্মরণে পুষ্পস্তবস অর্পণের ব্যবস্থা হচ্ছে। অথচ সৌদি আরবে বাংলাদেশ দূতাবাসে এর ব্যতিক্রম। এ বিষয়ে তিনি মন্তব্য করেন, সৌদি আরবে এ সংক্রান্ত আইনী অসুবিধা থাকলেও দূতাবাসের ভিতরে বাংলাদেশের দেশের জাতীয় কর্মসূচি পালন করার জন্য শহীদ মিনার তৈরিতে নিষেধ থাকার কথা নয়।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন রিয়াদে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীরা। সঞ্চালনায় ছিলেন আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল হায়দার ভূইয়া।

সভাপতি আব্দুল কাইয়ূম প্রবাসে বাংলাভাষা চর্চার জন্য সংগঠনের বিভিন্ন কর্মসূচি তুলে ধরেন। তিনি বলেন, সৌদি আরব পূর্বাঞ্চলীয় আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ সকল আওয়ামী সমর্থিত সংগঠনগুলোকে নিয়ে বাংলাভাষা চর্চা এবং এর বিস্তারে কাজ করে যাবে। এ ছাড়া জননেত্রী শেথ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী ও দেশউন্নয়নে প্রবাস থেকে সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

8 + four =