১-জুলাই-২০১৬-রক্তাক্ত-হয়েছিল দেশ

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

আজকের দিনে ১ বছর আগে ভয়াবহ জঙ্গি হামলায় কেঁপে উঠেছিল রাজধানী ঢাকা।  ২০১৬ সালের ১ জুলাইয়ের রাতে  রাজধানীর অভিজাত দূতাবাস এলাকা গুলশানের হলি আর্টিজান ক্যাফেতে  দেশি বিদেশী অতিথিদের উপর নির্বিচার হত্যাযজ্ঞ  চালিয়ে দেশি বিদেশি ২০ নিরীহ নাগরিককে বর্বরোচিত ভাবে হত্যা করে  ৫ জঙ্গি।জঙ্গিদের শান্তিপূর্ণ সমঝোতায় আনতে গিয়ে অতর্কিত বোমা হামলায়  নিহত হন মেধাবী ও কৃতি পুলিশ কর্মকর্তা বনানী থানার ওসি সালাহউদ্দিন আহমেদ সহ দুই শীর্ষ পুলিশ কর্মকর্তা। পরদিন সকালে কমান্ডো অভিযানে নিহত হয়  হামলাকারী ৫ জঙ্গির প্রত্যেকে।

অভিযান শেষে যৌথ বাহিনী বিদেশি নাগরিক-সহ মোট ১৩ জনকে জীবিত এবং মোট ২০ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করে। এদের মধ্যে একজন ভারতীয় নাগরিক। অপর ১৯ জনের জনের মধ্যে দু’জন বাংলাদেশি, একজন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আমেরিকান, নয়জন ইতালীয় এবং সাতজন জাপানি নাগরিক।

গ্রেপ্তার হয়েছে চার জঙ্গি। এখনও ধরা ছোঁয়ার বাইরে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন জেএমবির পাঁচ জঙ্গি। সেই ৫ সন্দেহভাজন  জঙ্গীকে ধরতে পারলে অজানা অনেক রহস্য  উদ্ঘাটিত হবে বলে মনে করছেন গোয়েন্দারা।  বর্বরোচিত সেই হত্যাযজ্ঞের সেই ঘটনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা  সারা দেশে দু’দিনের শোক ঘোষণা করেন।বাংলাদেশে জঙ্গি হামলার সবচেয়ে আলোচিত এ ঘটনা স্মরণ করে আজ ফুল দিয়েছে দেশি বিদেশী সর্বস্তরের মানুষ।

সেই হামলায় নিহত হয়েছিলেন ভারতীয় তরুণী তারুশি জৈন।  তার বাবা ঢাকায় ব্যবসা করতেন। কন্যা তারুশি ঢাকায় পড়াশোনার সুবাদে বন্ধুদের সঙ্গে নৈশভোজে গিয়েছিলেন।সেই অভিশপ্ত রাতই তাঁর শেষ রাত হলো। ৫ জঙ্গি পরিকল্পিত ভাবে হোলি আর্টিজান রেস্তরাঁয় প্রবেশ করে ২০ জন বিদেশি নাগরিকসহ ৩০ থেকে ৩৫ জন নিরীহ মানুষকে জিম্মি করে রাতভোর হত্যাযজ্ঞ চালায়। পরদিন শনিবার সকাল থেকে জিম্মিদের  উদ্ধারে কমান্ডো অভিযান শুরু করে যৌথ বাহিনী।

জঙ্গি হামলার এক বছর পরও আতঙ্কের রেশ কাটেনি। আতঙ্কের সঙ্গে নিরাপত্তার কড়াকড়িতে অপরিচিতদের ঘর ভাড়া দিচ্ছে না সেই এলাকার বহু ভবন। নতুন ভাড়াটিয়ার অভাবে ভাড়াও অর্ধেক নেমে এসেছে। দেশি-বিদেশি বিভিন্ন সংস্থার হয়ে ঢাকায় কর্মরত বিদেশিদের একটা বড় অংশ গুলশানে থাকেন। হামলার পর আতঙ্কে অনেকেই সেই জায়গা ছেড়ে চলে যান। ঘটনার পর থেকে নতুন করে বিদেশিদের আসা তুলনামূলকভাবে কমে যাওয়ায়  দূতাবাস এলাকার অনেক অ্যাপার্টমেন্ট এখনো শূণ্য পড়ে আছে ।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

eighteen − 5 =