২০২১ সালের মধ্যে সবাই বিদুৎ পাবে: অর্থমন্ত্রী

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

Finance Muhith“দেশে এক সময় প্রধান সমস্যা ছিল দারিদ্র্য। স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে দারিদ্র্যের হার ছিল ৭০ শতাংশ। বর্তমানে এর হার শতকরা ২৪ ভাগে নেমে এসেছে।মানুষের দাবি এখন খুব বেশি নেই। শুধু দাবি থাকে বিদ্যুৎ ও গ্যাসের। ২০২১ সালের মধ্যে দেশের সকল মানুষের ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেওয়া হবে ” -বললেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। দেশের মোট জনসংখ্যার ৬৭ ভাগ বিদ্যুতায়নের আওতায় এসেছে জানিয়ে ২০২১ সালের মধ্যে সবার ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেওয়ার এ প্রতিশ্রুতি দিলেন  অর্থমন্ত্রী ।  এই মুহূর্তে দেশে বিদ্যুতের কোনো সংকট নেই। চাহিদা অনুযায়ী পর্যাপ্ত বিদ্যুৎ আছে। সিলেটে এক অনুষ্ঠানে আলোচনা কালে মুহিত আরো বলেন নতুন চাহিদা মেটাতে বিদ্যুতের উৎপাদন বাড়ানোর উপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি।

সরকার দেশের মানুষের জন্য বিশুদ্ধ পানি ও স্যানিটেশন ব্যবস্থা নিশ্চিত করেছে উল্লেখ করে অর্থমন্ত্রী বলেন, মানুষ না খেয়ে এখন মরে না। গ্রামেগঞ্জে সব জায়গায় মানুষ বিশুদ্ধ পানি পাচ্ছে, স্যানিটেশনের সমস্যা নেই। সব মিলিয়ে দেশের মানুষ এখন সুখে আছে।

সিলেট শহরতলীর খাদিমপাড়া ইউনিয়নের ধলইপাড়ায় স্যোশাল ডেভেলপম্যান্ট ফাউন্ডেশনের (এসডিএফ) উদ্যোগে গ্রাম সমিতির নবনির্মিত ভবনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মন্ত্রী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। সিলেট জেলা প্রশাসক মো. শহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন এসডিএফ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক এজেডএম সাখাওয়াত হোসেন।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন এসডিএফের পরিচালক সৈয়দ এফতার হোসেন পিয়ার, দলইপাড়া গ্রাম সমিতির সদস্য পুষ্পরাণী পাত্র,  রূপালী ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান আহমদ আল কবির, সিলেট সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আশফাক আহমদ, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মীর মো. মাহবুবুর রহমান, খাদিমপাড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম বিলাল ও সমাজসেবী মখলিছুর রহমান।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

1 × 5 =