২ বাংলাদেশিকে গাড়িচাপায় হত্যা: আরসালান পুলিশ হেফাজতে

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedinmail

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কলকাতায় গত শুক্রবার গভীর রাতে দুই বাংলাদেশি কাজী মুহম্মদ মইনুল আলম ও ফারহানা ইসলাম ওরফে তানিয়াকে গাড়িচাপায় হত্যার মামলায় চালক আরসালান পারভেজকে ১০ দিনের পুলিশ হেফাজতে দেওয়া হয়েছে। রোববার কলকাতার নগর বিচার বিভাগীয় আদালতে তোলা হলে বিচারক এ আদেশ দেন।

যে জাগুয়ার গাড়িতে দুর্ঘটনা ঘটে সেটি কলকাতার একটি দামি চেইন রেস্তোরাঁর নামে নিবন্ধন করা।গাড়িটি চালাচ্ছিলেন ওই রেস্তোরাঁর মালিকের ছেলে আরসালান পারভেজ। তার বয়স ২২ বছর। আরসালান স্কটল্যান্ডের এডিনবরা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র। ছুটিতে আরসালান বাড়িতে এসেছিল। তার বাসা পার্ক সার্কাসের কাছে বেকবাগানে। গত শুক্রবার রাত ১২টার দিকে তিনি গাড়ি নিয়ে বের হয়েছিলেন।

বাংলাদেশ থেকে কলকাতায় বেড়াতে ও চিকিৎসা করাতে এসেছিলেন তিন বন্ধু। উঠেছিলেন কলকাতার মার্কুইস স্ট্রিটের একটি হোটেলে। গত শুক্রবার রাতে খাবার খেতে তাঁরা হোটেল থেকে বের হন। খাবার খেয়ে ফেরার পথে তাঁরা বৃষ্টিতে আটকা পড়েন। তখন আশ্রয় নেন পুলিশ কিয়স্কের নিচে। এ সময় একটি জাগুয়ার গাড়ি হঠাৎ এসে চাপা দিয়ে যায় তাদের দুজনকে। ঘটনাস্থলেই দুজন মারা যান, আরেকজন সামান্য আহত হন। নিহত দুজন হলেন কাজী মুহম্মদ মইনুল আলম (৩৬) ও ফারহানা ইসলাম ওরফে তানিয়া (৩০)। আহত হয়েছেন কাজী সফি রহমতউল্লাহ।

দুর্ঘটনার পরপর জাগুয়ারের চালক আরসালান গাড়ি ফেলে পালিয়ে যান। গতকাল দুপুরে তাকে আটক করা হয়। পুলিশ বলছে, তিনবার সিগনাল ভেঙে দ্রুতগতিতে যাওয়ার সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে। জাগুয়ারটি জব্দ করা হয়েছে।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

twenty − nine =